শেয়ার

ওয়াটার ড্রপ ডিসপ্লে আর ট্রিপল ক্যামেরা নিয়ে বাজারে আসলো ওয়ালটন প্রিমো এস ৭, আর এই ডিভাইসটিই ওয়ালটনের প্রথম নচ এবং ট্রিপল ক্যামেরা যুক্ত স্মার্টফোন। ডিভাইসটি আগষ্টের প্রথম সপ্তাহ থেকেই মার্কেটে পাওয়া যাবে। রিয়্যার ট্রিপল ক্যামের সেটাপ সহ সেলফির জন্য সামনে থাকছে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।  ক্র্যাফটি ডিজাইন আর ফিচার সম্পন্ন স্মার্টফোন-টি ইতি মধ্যেই ইউজারদের মাঝে ক্রেজ সৃষ্টি করতে সক্ষম হয়েছে। প্রিমো এস ৭ এর মূল্য রাখা হয়েছে ১৪,৯৯৯ টাকা মাত্র।

এক নজরে প্রিমো এস ৭:

  • ৪জি নেটওয়ার্ক সাপোর্ট
  • এন্ড্রয়েড ৯.০ পাই অপারেটিং সিস্টেম
  • ৬.২৬ ইঞ্চি, এইচডি আইপিএস ডিসপ্লে (ইউ নচ ডিসপ্লে)
  • ২.৫ডি কার্ভ গ্লাস
  • ১২ ন্যানোমিটার ২.০ গিগাহার্জ অক্টাকোর প্রসেসর
  • পাওয়ারভিআর জিই৮৩২০ জিপিউ
  • ৩ জিবি ডিডিআর-৪ র‌্যাম; ৩২ জিবি রম  (মাইক্র এসডি কার্ড দ্বারা ২৫৬ জিবি পর্যন্ত বর্ধিত করা যাবে)
  • ট্রিপল রিয়্যার ক্যামেরা (ট্রিপল (১২+১৩+২) মেগাপিক্সেল অটোফোকাস রিয়ার ক্যামেরা
  • ১৬ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা
  • ফেস আনলক
  • ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর
  • ৩৯০০ এমএএইচ ক্ষমতাসম্পন্ন লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি

 প্রিমো এস৭ বক্স এর ভেতর যা যা পাবেনঃ

  • প্রিমো এস৭ ডিভাইসটি
  • পাওয়ার আড্যাপ্টার
  • ইউ.এস.বি কেবল
  • ইয়ারফোন
  • সিম ইজেক্টর
  • স্ক্রিন প্রোটেকটর
  • একটি সু-দৃশ্য ব্যাক-কভার
  • ওয়ারেন্টি কার্ড ও আনুসাঙ্গিক কাগজপত্র

ইউজার ইন্টারফেস

অপারেটিং সিস্টেম

প্রিমো এস ৭ এ রয়েছে এন্ড্রয়েড পাই অপারেটিং সিস্টেম।

বডি ডিসপ্লে

এ্যালিগেন্ট ডিজাইনের ‘প্রিমো এস৭’ ডিভাইসটি বাজারে পাওয়া যাবে দুইটি আকর্ষণীয় কালারে।সি গ্রীন এবং ব্লু। গ্লসি মিরর ফ্রেম এবং গ্লাস ব্যাক প্যানেল ডিভাইসটির সৌন্দর্য্য বাড়িয়ে দিয়েছে বহুগুণ। ডিভাইসটির উচ্চতা ১৫৯ মিলিমিটার এবং প্রসস্থ ৭৬.৭ মিলিমিটার।  ব্যাটারি সহ এর ওজন প্রায় ১৭৫ গ্রাম। ভলিউম রকার্স এবং পাওয়ার বাটন রয়েছে ডিভাইসটের ডান পাশে উপরের দিকে। ৩.৫ মিলিমিটার অডিয়পোর্ট রয়েছে ডিভাইসের উপরের দিকে আর মাইক্রো ইউ.এস.বি চার্জিং পোর্ট রয়েছে ডিভাইসটিরে নিচের দিকে।

৬.২৬ ইঞ্চি এইচডি প্লাস আইপিএস নচ ডিসপ্লে ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে প্রিমো এস ৭ এ। যার ডিসপ্লে এস্পেক্ট রেসিও ১৯:৯ যা আল্ট্রা ফুল ভিউ ডিসপ্লে।  ডিভাইসটির বডি-টু-স্ক্রিন রেসিও মাত্র ৮৮%। ডিসপ্লের ব্রাইটনেস দারুন, কেননা এর ডিসপ্লে ব্রাইটনেস ৪৫০ নিট।

ক্যামেরা

প্রিমো এস৭ ডিভাইসটির মূল আকর্ষণ এর আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ট্রিপল কামেরা সেটআপ। ফোনটির রিয়ারে ১২+১৩+২ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে। মূল ক্যামেরাটি সনি আইএমএক্স৪৮৬ ক্যামেরা সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে। সাথে থাকছে ১২০ ডিগ্রী সুপার ওয়াইড লেন্স। এটি দিয়ে ১৯২০*১০৮০ পিক্সেলে ভিডিও রেকর্ড করা যাবে, যা ওয়ালটনের অন্য কোন ডিভাইসে নেই।

স্মার্টফোনটির ফ্রন্ট প্যানেলে ওয়াটার ড্রপ নচ এর ভেতর আছে একটি ১৬ মেগাপিক্সেল এর সেলফি ক্যামেরা সেন্সর। এর অ্যাপার্চার এফ/২.০। সাথে আরো রয়েছে ফেস ডিটেকশন, অটো-ফোকাস এবং আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স মোড তথা এআই বিউটি মোড। এটি দিয়ে ১০৮০ পিক্সেলে ভিডিও করা যাবে।

ক্যামেরা ইউ আই

হার্ডওয়্যার

ডিভাইসটির মেইন চিপসেট হিসেবে থাকছে মিডিয়াটেকের mt6762 সিপিইউ।  প্রোসেসর হিসেবে রয়েছে ১২ ন্যানোমিটার প্রযুক্তির AI ২ গিগাহার্জ অক্টা-কোর প্রসেসর। প্রিমো এস ৭ এ ১২ ন্যানোমিটার প্রযুক্তি থাকার কারনে ব্যাটারির দিক দিয়েও অনেক সাশ্রয়ী হবে। ডিভাইসটিতে জি.পি.ইউ রয়েছে পাওয়ার ভিআর জিই৮৩২০ গ্রাফিক্স।

প্রিমো এস ৭ এ ৩ জিবি ডিডিআর৪ র‌্যাম, ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ ব্যবহার করা হয়েছে। ইন্টারনাল মেমোরী ২৫৬ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

বেঞ্চমার্ক স্কোর

আমরা প্রিমো এস ৭ এর বেঞ্চমার্কিং করেছি। স্কোর গুলো দেখে নিন।

ব্যাটারি

প্রিমো এস৭ স্মার্টফোনটিতে থাকছে ৩৯০০ এম.এ.এইচ ক্ষমতা সম্পন্ন লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি।  ডিভাইসটি ৫ ভোল্ট বাই ২ অ্যাম্পিয়ার ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে। আর ডিভাইসটি ফুল চার্জ হতে ২ ঘন্টারও কম সময় লাগবে।

স্পেশাল ফিচারসঃ

ফিঙ্গারপ্রিন্ট

স্মার্টফোনটির রিয়ার প্যানেলে ক্যামেরা মডিউলএর ঠিক কাছেই থাকছে একটি ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।  যেখানে সর্বোচ্চ ৫ টি ফিঙ্গারপ্রিন্ট সাপোর্ট করবে।  আর এই ফিঙ্গারপ্রিন্টের রেসপন্স টাইম ০.১ সেকেন্ড; যা সত্যি খুব ফাস্ট।

ফেস আনলক

প্রিমো এস ৭ এ রয়েছে AI Supported ফেস আনলক সুবিধা।

ওয়ারেন্টি

ওয়ালটন এর অন্যসব ফোনের মতই এতে পাওয়া যাবে রিপ্লেসমেন্ট এবং ওয়ারেন্টি সুবিধা।

মন্তব্যসমূহ