শেয়ার

বাজেট বান্ধব স্মার্টফোন কিনতে গেলে ওয়ালটন ছাড়া অন্য কোন মোবাইল কোম্পানীর মনে আসেনা সাধারণত, কেননা বাংলাদেশে একমাত্র  ওয়ালটন-ই সাধ এবং সাধ্যের সমন্বয়ে স্মার্টফোন তৈরী করে আসছে। আজকে আমরা আলোচনা করবো ওয়ালটনের নতুন স্মার্টফোন Walton Primo NH4 নিয়ে। ৫.৭” ডিসপ্লে সম্পন্ন স্মার্টফোনটি ফুল ভিউ বিগ ডিসপ্লে।

Walton Primo NH4 Out Of the box

  • হ্যান্ডসেট
  • চার্জার এ্যডাপ্টার এবং চার্জির ক্যাবল
  • প্রোটেকশন গ্লাস
  • সেইফটি ইনসট্রাকশন
  • ওয়ারেন্টি কার্ড

একনজরে প্রিমো (Primo NH4) এনএইচ৪

  • অপারেটিং সিস্টেম এন্ড্রয়েড ৮.১ গো
  • মেমোরি ১জিবি র‍্যাম, ৮ জিবি রম, ৬৪ জিবি পর্যন্ত এক্সটারনাল স্টোরেজ সাপোর্ট
  • প্রসেসর ১.৩ গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর
  • ডিসপ্লে ৫.৭ ইঞ্চি ১৮ঃ৯ রেসিও ফুল ভিউ (এফডাব্লিউভিজিএ) ডিসপ্লে
  • ক্যামেরা ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং রিয়ার ক্যামেরা যার সামনে পিছনে উভয় পাশেই থাকবে ফ্ল্যাশ
  • ব্যাটারি ২৪০০ এমএএইচ লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি
  • দাম ৪৯৯৯ টাকা

অপারেটিং সিস্টেম

স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ৮.১ এ্যন্ড্রয়েড গো এডিশন অপারেটিং সিস্টেম।

ইউজার ইন্টারফেস

Walton Primo NH4 এ ইউজ করা হয়েছে স্টক এন্ড্রয়েড ওরিয়ো অপটিমাইজড ইউজার ইন্টারফেস।

ডিসপ্লে এবং বডি

Walton Primo NH4 এর ফ্রন্ট প্যানেলে রয়েছে ২.৫ডি কার্ভড ডিসপ্লে। ডিভাইসটির স্ক্রিন রেজুল্যুশন হলো ৯৬০*৪৮০ পিক্সেল। ডিভাইসটির ডিসপ্লে-তে ব্যবহার করা হয়েছে এফডাব্লিউভিজিএ-প্লাস (FWVGA+) প্রযুক্তি।  এর স্ক্রিন-সাইজ ৫.৭ ইঞ্চি (প্রায় ১৪.৪ সেন্টিমিটার)।

ডিভাইসটির উচ্চতা ১৩৩.৭ মিলিমিটার এবং এটি প্রসস্থ ৭৫ মিলিমিটার।  Walton Primo NH4 ডিভাইসটি ৯ মিলিমিটার পুরু এবং ব্যাটারি সহ। ওজন প্রায় ১৫৮ গ্রাম।  সম্পূর্ণ ডিভাইসকে পাওয়ার দিবে একটি ২৪০০ এমএএইচ লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি।  প্রিমো এনএইচ৪ ডিভাইসটি ডার্ক ব্লু, রেড এবং ব্ল্যাক (গাড়ো নীল,লাল এবং কালো) এই ৩টি কালারে পাওয়া যাবে।

ক্যামেরা

ডিভাইসটির রিয়ার প্যানেলে আছে সিংগেল ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা, ক্যামেরার স্পেশালিটির মধ্যে রয়েছে অটোফোকাস। সাথে ইউজ করা হয়েছে উজ্বল এলইডি ফ্ল্যাশ। এছাড়া সেলফি লাভারদের জন্য প্রিমো এনএইচ৪ ডিভাইসটির ফ্রন্ট প্যানেলেও থাকছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। স্বল্প আলোতে ছবি তোলার জন্য জন্য থাকছে এলইডি ফ্ল্যাশ।

ক্যামেরা ইউআই

হার্ডওয়্যার

Primo NH4 এ ইউজ করা হয়েছে ১.৩ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রোসেসর। সাথে গ্রাফিক্স প্রোসেসিং ইউনিট হিসেবে রয়েছে মালি ৪০০ জিপিইউ। সাধারণত ওয়ালটনের লো-এন্ড বাজেটের স্মার্টফোন গুলোতে এই কম্বিনেশন ইউজ করা হয়।

স্মার্টফোনটিতে ইন্টারনাল স্টোরেজ পাওয়া যাবে ৮ জিবি যার মধ্যে প্রায় ৪ জিবি ফাকা পাওয়া যাবে।  আর ৬৪ জিবি পর্যন্ত এক্সটারনাল স্টোরেজ সাপোর্ট তো থাকছেই।  সম্পূর্ণ সিস্টেমকে ব্যাকাপ দেয়ার জন্য রয়েছে ১ জিবি র‍্যাম।

বেঞ্চমার্ক

ওয়্যারেন্টি ইনফরমেশন:

মন্তব্য:

ধরুন আপনার বাজেটে ৫ হাজার মধ্যে। এই বাজেটে কিন্তু আপনি মোটেই ফ্ল্যাগশিপ টাইপ স্মার্টফোন আশা করবেন না। কিন্তু এই বাজেটে বাজারে অন্য যে কোন মোবাইলের চেয়ে Walton Primo NH4 আপনাকে বেস্ট সাপোর্ট আর বেষ্ট অপশন অফার করবে নিশ্চিত।

মন্তব্যসমূহ