শেয়ার

স্মার্টফোনের এই দুনিয়ায় তরুণ প্রজন্ম ফিচার ফোনের কথা মনে রেখেছে কিনা সেটা বলা মুশকিল। কিন্তু এক সময় এই ফিচার ফোন-ই রাজত্ব করেছিল মোবাইল বিশ্ব। সময়টা ১৯৯৮-২০০৬ সাল। তখন একটি ফিচার ফোন কিনতেই গুনতে হতো ১০ হাজার টাকার উপরে। মনে আছে নকিয়া ৫১২৬ মডেলের কথা? এই মোবাইল ফোনটা কিনেছিলাম গ্রামীন সিম সহ ১১,৫০০ টাকা দিয়ে। সেই সময়-টা নকিয়ার ছিলো একচ্ছত্র আধিপত্য।

সেই সময় এখন আর নেই। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে মানুষের চাহিদা, আকাংখা সব-ই পরিবর্তন হয়েছে। আর তাই ফিচার ফোনের কথা এখন সবাই ভুলে যেতে বসেছে। তাই বলে ফিচার ফোনের ব্যবহার কিন্তু কমেনি। এখনো গ্রাম-গঞ্জের মুরুব্বি পর্যায়ের লোকজন স্মার্টফোনের চেয়ে ফিচার ফোনের প্রতি নির্ভরশীল। এর প্রধান কারণ হলো সহজ ব্যবহার আর হ্যাং হবার ঝামেলা নেই।

তবে আজকাল তরুণদের মধ্যে স্মার্টফোন ব্যবহারের পাশাপাশি শুধু মাত্র কথা বলার জন্য ফিচার ফোনের ব্যবহার বেরেছে অনেক।

আর তাই সব ধরনের দের কথা মাথায় রেখেই ওয়ালটন লঞ্চ করেছে বেশ কিছু ফিচার ফোন। আমার পুরো আলোচনায় আমি ওয়ালটনের ফিচার ফোন গুলো নিয়ে কথা বলবো। ততক্ষন আমার সাথেই থাকুন।

Olvio L6

আলোচনার শুরুতেই থাকবে Olvio L6 নিয়ে।

৭৬০ টাকা মূল্যের এই ফিচার ফোনটির “ফিচার” গুলো কিন্তু দারুণ। ডিজিটাল ক্যামেরা, এম.পি.থ্রি, এম.পি.ফোর প্লেয়ার, এফ.এম রেডিও উইথ রেকর্ডিং, সাউন্ড রেকর্ডিং, ভিডিও রেকর্ডিং ইত্যাদি সুবিধা পাবেন এই ফিচার ফোনটিতে। এছাড়া আরো অনেক সুবিধার মধ্যে রয়েছে: ফেসবুক, ব্লুটুথ, মাইক্রো এস.ডি কার্ড (১৬ জিবি পর্যন্ত) ডুয়াল সিম (ডুয়াল স্ট্যান্ডবাই)।

এছাড়া ফিচার ফোনটির ডিসপ্লে রয়েছে ১.৭৭” কিউ.কিউ.ভি.জি.এ স্ক্রিন।

ডিভাইসটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ভিজিট করুন।

Olvio L7

Olvio L7 ফিচার ফোনটির বাজার মূল্য রাখা হয়েছে ৭৩০ টাকা।

১.৭৭” কিউ.কিউ.ভি.জি.এ স্ক্রিন যুক্ত ফিচার ফোনটিতে রয়েছে ডিজিটাল ক্যামেরা, এম.পি.থ্রি, এম.পি.ফোর, থ্রি.জি.পি প্লেয়ার, এফ.এম রেডিও উইথ রেকর্ডিং। এছাড়া আরো রয়েছে সাউন্ড রেকর্ডিং, ভিডিও রেকর্ডিং সুবিধা। ব্লুটুথ, মাইক্রো এস.ডি কার্ড (১৬ জিবি পর্যন্ত) ডুয়াল সিম (ডুয়াল স্ট্যান্ডবাই) ইউজ করতে পারবেন ডিভাইসটিতে।

ফিচার ফোনটির ভালা লাগা ফিচার গুলোর মধ্যে রয়েছে:

** টর্চ লাইট

** পাওয়ার সেভিং মোড

** ব্লাক লিস্ট।

** হোয়াইট লিস্ট

ডিভাইসটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন এখানে।

L9

স্টাইলিশ এবং কালারফুল ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে আপনাদের জন্য অপেক্ষা করছে  L9. ডিভাইসটির বিভিন্ন কালার এবং স্টাইলিশ ডিজাইন আপনার মনোযোগ আকর্ষণ করতে বাধ্য।

L9 ফিচার ফোনটির বাজার মূল্য রাখা হয়েছে ৭৭০ টাকা।

১.৭৭” কিউ.কিউ.ভি.জি.এ স্ক্রিন যুক্ত ফিচার ফোনটি ব্যবহৃত হয়েছে ডিজিটাল ক্যামেরা, এম.পি.থ্রি, এম.পি.ফোর, থ্রি.জি.পি প্লেয়ার, এফ.এম রেডিও উইথ রেকর্ডিং। মজার ব্যপার হলো এই ডিভাইসটিতে এফ.এম রেডিও শুনতে কোন ইয়ার পিছ লাগবেনা। ডিভাইসটির সাথে আরো পাবেন সাউন্ড রেকর্ডিং, ভিডিও রেকর্ডিং, ব্লুটুথ, মাইক্রো এস.ডি কার্ড (১৬ জিবি পর্যন্ত) ডুয়াল সিম (ডুয়াল স্ট্যান্ডবাই) সুবিধা।

ফিচার ফোনটির ভালা লাগা ফিচার গুলোর মধ্যে রয়েছে:

** টর্চ লাইট

** পাওয়ার সেভিং মোড

** ব্লাক লিস্ট।

** হোয়াইট লিস্ট

ডিভাইসটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন এখানে।

 

মন্তব্যসমূহ