শেয়ার

Walton Primo H7, সাধ্যের মধ্যে আরো একটি স্মার্টফোন। প্রশ্ন হলো ডিভাইসটির স্পেশালিটি কি?

সবার আগে যেটা বলতে হয় তা হলো ডিভাইসটি-তে রয়েছে বর্তমান সময়ের ক্রেজ 18:9 ফুল ভিউ ডিসপ্লে। শুধু তাই নয় ডিভাইসটিতে রয়েছে 2.5D Curved Glass 5.5” HD IPS Display. আরো পাবেন ১ জিবি র‌্যাম, ৮ মেগাপিক্সেল রিয়্যার ক্যামেরা এবং ২৮৫০ মিলি এ্যম্পিয়ার লি-আয়ন ব্যাটারি। আর এই স্মার্টফোন-টি আপনারা পাচ্ছেন মাত্র ৭,৯৯৯ টাকায়। ডিভাইসটির বিস্তারিত বিবরণে যাবার আগে চলুন দেখে নেই ডিভাইসটির কনফিগারেশন।

ডিভাইসের নাম Primo H7
ডিসপ্লে: 5.5″ HD Display
প্রোটেকশন নেই
র‌্যাম ১ জিবি
রম ৮ জিবি ( ১২৮ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে)
সি.পি.ইউ ১.৩ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রোসেসর
জি.পি.ইউ মালি ৪০০
ক্যামেরা রিয়্যার ৮ মেগাপিক্সেল
ফ্রন্ট ৫ মেগাপিক্সেল (উইথ ফ্ল্যাশ লাইট)
ব্যাটারি ২৮৫০ মিলি এ্যম্পিয়ার
দাম ৭,৯৯৯ টাকা।
ডিসপ্লে এবং টাচ

Primo H7 এ আপনাদের জন্য রয়েছে ৫.৫” Full View HD Display. ডিসপ্লের রেজুল্যুশন ১২৮০ * ৭২০ পিক্সেল। সালে রয়েছে 2.5D Curved Glass. ডিসপ্লে-তে কোন প্রোটেকশনের ব্যাপারে ওয়ালটন কোন কিছু স্পষ্ট করে কিছু বলেনি। ৫ আংগুল পর্যন্ত মাল্টি টাচ সাপোর্ট করে ডিভাইসটিতে। টাচ রেছপঞ্ছ বেশ ভালো। ল্যাগ ছিলোনা বললেই চলে।

র‌্যাম এবং রম

Primo H7 এ ব্যবহৃত হয়েছে ১ জিবি র‌্যাম এবং৮ জিবি ইন্টারনাল মেমোরী রয়েছে।  ইন্টারনাল মেমেরাী ১২৮ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

সি.পি.ইউ / জি.পি.ইউ

Primo H7 এ রয়েছে ১.৩ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর এবং মালি ৪০০ জি.পি.ইউ।

আনবক্সিং

Primo H7 এর সাথে আপনারা পাচ্ছেন

** একটি Standard Ear phone,

** ইউ এস বি চার্জার উইথ ডাটা কেবল

**  সিম ইজেক্টর

** স্ট্যান্ডার্ড ইয়ার ফোন

** ট্রান্সপারেন্ট ব্যাক কভার।

 

আউটলুক

মেটালিক স্ট্রাকচারের Primo H7 এর আউটলুক আসলেই দারুন। এইরকম কম দামে মেটালিক বডির স্মার্টফোন আছে বলে আমার জানা নেই। ওয়ালটন-কে সাধুবাদ দিতেই হচ্ছে এই সকম সাহসী পদক্ষেপ নেয়ার জন্য। Primo H7 এর ডিসপ্লে-তে রয়েছে 2.5D Curved Glass এবং ৫.৫” HD Display. ফ্রন্ট প্যানেলে উপরের দিকে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং প্রক্সিমিটি সেন্সর। সেলফি লাভারদের জন্য ফ্রন্ট ফ্ল্যাশ লাইটও রয়েছে। তবে নেভিগেশন বার গুলো ইনসাইড ডিসপ্লে-তেই রয়েছে।

ভলিউম রকার্স এবং পাওয়ার বাটন রয়েছে ডিভাইসের উপরের দিকে ডান পাশে।

মাইক্রো ইউ এস বি পোর্ট, ৩.৫ মিলিমিটার অডিও পোর্ট রয়েছে ডিভাইসের উপরের দিকে। লাউড স্পিকার রয়েছে ডিভাইসের নিচের দিকে। এছাড়া সিমকার্ড+এস.ডি কার্ড রয়েছে ডিভাইসের ডান পাশে।

রিয়্যার প্যানেলে উপরের দিকে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং ফ্ল্যাশ লাইট।

ডিভাইসের প্রোটেকশনের জন্য রয়েছে বায়োমেট্রিক ফিংগার প্রিন্ট সেন্সর। আর সেন্সরটি রয়েছে ক্যামেরার নিচের দিকে।

ব্যাকপার্ট-টি নন রিমুভেবল। ব্যাটারি ব্যাকাপ রয়েছে ২৮৫০ মিলি এ্যম্পিয়ার। ডিভাইসটির দৈর্ঘ্য ১৫১ মিলিমিটার, প্রস্থ্য ৭১ মিলিমিটার এবং পূরুত্ব ৯ মিলিমিটার। আর ডিভাইসটির ওজন ১৫৫ গ্রাম।

উপরের আলোচনা গুলো একটু মিলিয়ে নিন।

ইউজার ইন্টারফেস

Primo H7 এ গুগলের স্টক ইউজার ইন্টারফেজ ইউজ করা হয়েছে। বিশেষ কোন ফিচার আমার চোখে পরেনি।

অপারেটিং সিস্টেম

Primo H7 এ অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে পাবেন Android 7.0 Nougat.

ক্যামেরা

Primo H7 এ সামনের দিকে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা। এছাড়া রিয়্যার প্যানেলে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। রিয়্যার এবং সেলফি ক্যামেরা কোয়ালটি চমৎকার। চলুন ডিভাইস দিলে তোলা কিছু ছবি দেখে নেই।

কানেক্টিভিটি এবং সেন্সর

Primo H7 এ যে সকল সেন্সর রয়েছে তা হলো: 

Accelerometer (3D), Gravity (3D), Gyroscope, Rotation Vector, Linear Acceleration, Light, Proximity, Magnetic Field (Compass), Orientation, Fingerprint Sensor, 
Primo H7 এ যে সকল কানেক্টিভিটি রয়েছে: WI-FI, Bluetooth V4, Micro USB 2.0, OTG OTA, Wireless Display, WLAN Hotspot ইত্যাদি।

স্পেশাল ফিচারস

** মাল্টি উইন্ডো: যারা এক সাথে একাধিক কাজ করতে পছন্দ করেন তাদের জন্য উপকারী ফিচার এটি। তবে ব্যাক গ্রাউন্ডে একাধিক এ্যপ চালু থাকলে মোবাইল স্লো হতে পারে।

বেঞ্চমার্ক স্কোর

Primo H7 এর আমরা গিকবেঞ্চ টেষ্ট করেছি। চলুন এক নজরে স্কোর দেখে নেই।

দাম

Primo H7 এর বাজার মূল্য রাখা হয়েছে ৭,৯৯৯ টাকা। আমার কাছে পার্সোনালী এই বাজেটে এর চেয়ে ভালো স্মার্টফোন চোখে পরেনা।

 

 

 

মন্তব্যসমূহ