শেয়ার

বাংলাদেশে শুরু হলো 4G যুগের সূচনা। দেশীয় কোম্পানী ওয়ালটনও কিন্তু পিছিয়ে নেই। ওয়াল্টনও ইতিমধ্যে বাজারে লঞ্চ করেছে 4G Enabled বেশ কিছু smart phone. আজকে আমরা আলোচনা করবো ওয়ালটনের নতুন স্মার্টফোন Walton Primo RH3 নিয়ে।

Primo RH3’কিছু হাইলাইট:

** ৫” এইচ ডি ডিসপ্লে

**  ২.৫ ডি কার্ভড গ্লাস

**  ২ জিবি র‌্যাম

** ১৬ জিবি বিল্ট ইন মেমোরী

** Supports 4G

** 2600 mAh Battery

ডিভাইসটির ডিসপ্লে, বিল্ট কোয়ালিটি, ক্যামেরা পারফরমেন্স এবং অন্যান্য ফিচার গুলো নিয়ে কথা বলবো আমার আজকের রিভিউ-এ। চলুন প্রথমে দেখে নেই ডিভাইসটির কনফিগারেশন এক ঝলকে:

ডিভাইসের নাম Primo RH3
ডিসপ্লে: 5″ HD IPS Display
2.5D Curved Glass 
প্রোটেকশন নেই
র‌্যাম 2 জিবি
রম ১৬ জিবি ( ১২৮ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে)
সি.পি.ইউ ১.২৫ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রোসেসর
জি.পি.ইউ মালি টি৭২০
ক্যামেরা রিয়্যার ৮ মেগাপিক্সেল
ফ্রন্ট ৮ মেগাপিক্সেল
ব্যাটারি ২৬০০ মিলি এ্যম্পিয়ার
দাম ৯,৬৯০ টাকা
আনবক্সিং

Primo RH3  এর সাথে আপানারা যে সকল জিনিস পাচ্ছেন:

** Standard Ear phone.

** ট্র্যান্সপারেন্ট ব্যাক কভার

**  ইউ এস বি চার্জার উইথ ডাটা কেবল

** ইউজার ম্যানুয়াল এবং ওয়্যারেন্টি কার্ড।

** সিম ইজেক্টর

অপারেটিং সিস্টেম

Primo RH3 এ এ্যন্ড্রয়েড নোগাট ৭.০ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে।

ইউজার ইন্টারফেস:

Primo RH3 এ স্টক ইউজার ইন্টারফেস ইউজ করা হয়েছে। ব্যাসিকেলি স্টক এ্যন্ড্রয়েড ভালো নাগ লাগলে কাস্টমাইজ করে ইউজ করার সুবিধা আছে। আর এটা ইউজারদের উপর ডিপেন্ড করে।

ডিসপ্লে

Primo RH3-তে রয়েছে ২.৫ ডি- ৫” এইচ ডি আই পি এস ডিসপ্লে। ডিসপ্লে রেজুল্যুশন হলো ১২৮০ * ৭২০ পিক্সেল। ডিসপ্লে-তে ৫ আঙ্গুল পর্যন্ত মাল্টি টাচ সাপোর্ট করে। এছাড়া টাচ রেছপঞ্ছও দারুণ।

র‌্যাম এবং রম

Primo RH3-এ ব্যবহার করা হয়েছে ২ জিবি DDR3 র‌্যাম এবং ১৬ জিবি ইন্টারনাল মেমোরী। এছাড়া ১২৮ জিবি পর্যন্ত এক্সট্রা মেমোরী কার্ড ইউজ করার সুবিধা রয়েছে স্মার্টফোন-টিতে।

সি.পি.ইউ / জি.পি.ইউ

Primo RH3- এ ১.২৫ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রোসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়া গ্রাফিক্স প্রোসেসিং এর জন্য পাবেন মালি টি৭২০ জি.পি.উ.

ডিজাইন এবং বিল্ড কোয়ালিটি

ডিজাইনের দিক দিয়ে Primo RH3-কে নিয়ে কোন কনফিউশন নেই আমার। মেটালিক ডিজাইন, শাইনি ব্যাক কভার, ফ্রন্ট মাউন্ডেট ফিংগার প্রিন্ট সেন্সর সব কিছুই পারফেক্ট।ডিভাইসটির ফ্রন্ট প্যানেলে ব্যবহার করা হয়েছে ২.৫ডি কার্ভড গ্লাস। যা ডিসপ্লে সৌন্দর্যকে বাড়িয়ে তুলেছে। ডিসপ্লের উপরের দিকে রযেছে ৮ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা, ক্যামেরার পাশেই রয়েছে প্রক্সিমিটি সেন্সর এবং নোটিফিকেশন লাইট।মোবাইল অপারেট করার জন্য নেভিগেশন কি গুলো রয়েছে ডিসপ্লের মধ্যেই। ডিসপ্লের নিচের অংশে পাবেন বায়োমেট্রিক ফিংগার প্রিন্ট সেন্সর।

ভলিউম রকার্স এবং পাওয়ার বাটন রয়েছে ডিভাইসের ডান পাশে উপরের দিকে।

মাইক্রো ইউ এস বি পোর্ট এবং ৩.৫ মিলিমিটার অডিও পোর্ট রয়েছে ডিভাইসের নিচের দিকে। এছাড়া আরো রয়েছে লাউড স্পিকার।

ডিভাইসটির পেছনে রয়েছ শাইনি ব্যাক কভার, যা  নন-রিমুভেবল। রিয়্যার প্যানেলে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা+ফ্ল্যাশ লাইট। Primo RH3-তে ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে ২৬০০ মিলি এ্যম্পিয়ার লি-পলিমার ব্যাটারি। সিম কার্ড ট্রে এবং এস.ডি কার্ড স্লট রয়েছে ডিভাইসের উপরের দিকে।

Primo RH3 এর দৈর্ঘ্য ১৪৩.৫ মিলিমিটার, প্রস্থ্য ৬৯.৪ মিলিমিটার এবং পুরুত্ব ৮.৫ মিলিমিটার।

ক্যামেরা

Primo RH3 এর রিয়্যার প্যানেলে রয়েছে BSI sensor যুক্ত ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ক্যামেরা সাথে রয়েছে এল.ই.ডি ফ্ল্যাশ লাইট। সেলফি তোলার জন্য ফ্রন্ট প্যানেলেও রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। Overall Camera Performance এ আমি সন্তুষ্ঠ। চলুন ক্যামেরা দিয়ে তোলা কিছু ছবি দেখে নেই।

রিয়্যার:

সেলফি:

কানেক্টিভিটি এবং সেন্সর

Primo RH3 এ যে সকল সেন্সর রয়েছে তা হলো: Accelerometer (3D), Gravity (3D) Light (Brightness) Proximity sensor, GPS with A-GPS ইত্যাদি। Primo RH3 এ যে সকল কানেক্টিভিটি রয়েছে: Wi-Fi, Bluetooth V4, Micro USB V2, WLAN Hotspot, HSPA+ OTGইত্যাদি।

স্পেশাল ফিচারস

Primo RH3 এর বেশ কিছু ফিচার আমার কাছে ভালো লেগেছে। চলুন জেনে নেই ফিচার গুলো।

** 4G Supported Device

** Stylish Edge to Edge Design

** Multi Window

** Integrated Battery Server.

** OTG 

বেঞ্চমার্ক স্কোর

আমি Primo RH3 এর বেঞ্চমার্ক স্কোর করেছি। একটু স্কোর গুলো দেখে নিন।

দাম

Primo RH3 এর মূল্য রাখা হয়েছে ৯,৬৯০ টাকা মাত্র।

 

মন্তব্যসমূহ