শেয়ার

ওয়ালটন মানেই নতুন প্রযুক্তি। প্রায় প্রতিমাসেই নিত্য নতুন মোবাইলের সাথে ওয়ালটন আমাদের পরিচয় করিয়ে দেয়। ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন থেকে শুরু করে ফিচার ফোন পর্যন্ত সব-ই আছে ওয়ালটন’র আজকে আমরা কথা বলবো মিড রেঞ্জ বাজেটের  স্মার্টফোন Walton Primo S6 নিয়ে।

ডিভাইসটির বিস্তারিত আলোচনায় যাবার আগে জেনে নেই Primo S6 এর কনফিগারেশনের এক ঝলক।

ডিভাইসের নাম Primo S6
ডিসপ্লে: ৫.২” এইচ ডি ডিসপ্লে
প্রোটেকশন YES
র‌্যাম ৩ জিবি
রম ১৬ জিবি (১২৮ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে)
সি.পি.ইউ ১.৪ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রোসেসর
জি.পি.ইউ মালি টি৭২০
ক্যামেরা রিয়্যার ১৩ মেগাপিক্সেল
ফ্রন্ট ১৬ মেগাপিক্সেল উইথ ফ্ল্যাশ
ব্যাটারি ৪০০০ মিলি এ্যম্পিয়ার নন রিমুভেবল
দাম ১৫,৫৯০ টাকা
ডিসপ্লে

আলোচনার শুরুতেই জেনে নেবো ডিভাইসটির ডিসপ্লে সম্পর্কে। Primo S6 এ রয়েছ ৫.২” এইচ ডি ডিসপ্লে।

ডিসপ্লে’তে প্রোটেকশন থাকায় স্ক্র্যাচ নিয়ে খুব একটা চিন্তা করতে হবেনা। তারপরেও ঝুকি না নিয়ে একটা স্ক্রিন প্রোটেক্টর ইউজ করতে পারেন। ডিসপ্লেতে ৫ আঙ্গুল পর্যন্ত মাল্টি টাচ সাপোর্ট করে।

র‌্যাম এবং রম

দ্রুত গতিতে কাজ করার জন্য ডিভাইসটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ৩ জিবি র‌্যাম। এছাড়া ইন্টারনাল মেমোরী রয়েছে ১৬ জিবি। আর ১২৮ জিবি এক্সট্রা মেমোরী কার্ড ব্যবহারের সুবিধাও রয়েছে।

প্রোসেসর

Primo S6 এ রয়েছে ১.৪ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রোসেসর।

জিপিইউ

গেমিং এবং ভিডিও প্রোসেসিং এর জন্য ব্যবহার করা হয়েছে মালি টি৭২০ জিপিইউ।

আনবক্সিং

Primo S6 এর সাথে আপনারা পাচ্ছেন একটি Standard Ear phone, ইউ এস বি চার্জার উইথ ডাটা কেবল, সিম ইজেক্টর এবং সুদৃশ্য ব্যক কভার।

আউটলুক

সম্পূর্ণ মেটালিক ফ্রেম যুক্ত ডিভাইসটিতে ৫.২” ডিসপ্লের পাশাপাশি  ফ্রন্ট প্যানেলে উপরের দিকে রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেল সুপার্ব সেলফি ক্যামেরা। ক্যামেরার পাশে ফ্ল্যাশ লাইট ছাড়াও রয়েছে প্রক্সিমিটি সেন্সর।ডিভাইসটির নিচের অংশে রয়েছ ৩টি ক্যাপাসিটিভ টাচ প্যানেল।

ভলিউম রকার্স এবং পাওয়ার বাটন রয়েছে ডিভাইসের উপরের অংশে ডান পাশে।

মাইক্রো ইউ এস বি পোর্ট রয়েছে ডিভাইসের নিচের অংশে। আর ৩.৫ মিলিমিটার অডিও পোর্ট রয়েছে ডিভাইসের উপরের অংশে। এছাড়া এছাড়া সিমকার্ড ট্রে রয়েছে ডিভাইসের বাম পাশে।

রিয়্যার প্যানেলে উপরের দিকে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেল PDAF ক্যামেরা। ক্যামেরার সাথে ফ্ল্যাশ লাইটের পাশাপাশি আরো রয়েছে বায়োমেট্রিক ফিংগার প্রিন্ট সেন্সর।

ব্যাকপার্ট-টি সম্পূর্ণ নন রিমুভেবল। তবে সবচেয়ে আকর্ষণীয় যে বিষয়টি রয়েছে তা হলো ডিভাইসটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ৪০০০ মিলি এ্যম্পিয়ার লি-আয়ন ব্যাটারি।

ডিভাইসটির দৈর্ঘ্য ১৫০.৫ মিলিমিটার, প্রস্থ্য ৭৩.৫ মিলিমিটার এবং পূরুত্ব ৮.৮ মিলিমিটার। আর ডিভাইসটির ওজন মাত্র ১৬৬ গ্রাম।

ইউজার ইন্টারফেস

Primo S6 এ ব্যবহার করা হয়েছে Android Nougat 7.0 OS. এছাড়া আরো ভালা লাগার বিষয় হলো ডিভাইসটিতে ব্যবহার করা হয়েছে Amigo 3.2 UI. বেশ কিছু নতুনত্ব রয়েছে ডিভাইসটিতে। টাস্কবার অন হবে নিচ থেকে উপরের দিকে আংগুল সোয়াইপ করলে। এছাড়া আইকন গুলো বেশ স্টাইলিশ। ইউ আই ট্রানজিশনও খুব স্মুদ।

অপারেটিং সিস্টেম

Primo S6 এ অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে পাবেন Android 7.0 Nougat.

ক্যামেরা

Primo S6 এর ক্যামেরায় নতুনত্ব রয়েছে। বিশেষ করে সেলফি ক্যামেরায়। সেলফি ক্যামেরায় ব্যবহার করা হয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ক্যামেরার কোয়ালিটি এক কথায় সুপার্ব। সেলফি ক্যামেরায় ফ্ল্যাশ লাইটও কিন্তু রয়েছে।রিয়্যার প্যানেলে রয়েছ ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা উইথ ব্রাইট ফ্ল্যাশ লাইট। ক্যামেরায় যে সেকল সুবিধা গুলো রয়েছে একটু দেখে নিন।

Rear Camera: BSI 13MP with 5p Lens, Auto Focus with LED Flash, 0.1s PDAF (Phase Detection Auto Focus)
Aperture: f2.2

Camera Features: 1/3″ sensor size, Back-illuminated Sensor (BSI), Face Detection, Digital Zoom, Self-timer, Auto-Focus, Touch Focus, and Touch Shot

Settings: Exposure Compensation, White Balance Presets, Shutter Speed Control, ISO Balance, Manual Focusing

Shooting Modes: Normal Mode, Professional Camera Mode, Face Beauty, Slow Motion, Time-lapse, HDR, Panorama, Smart Scene, Night Mode, GIF, Card Scanner, Translation

Video Recording: Full HD-1920×1080

কানেক্টিভিটি এবং সেন্সর

Primo S6 এ যে সকল সেন্সর রয়েছে তা হলো: 

Accelerometer (3D), Gravity (3D), Gyroscope, Rotation Vector, Linear Acceleration, Light, Proximity, Magnetic Field (Compass), Orientation,Fingerprint Sensor,  Smart Remote Control IR Bluster.
Primo S6 এ যে সকল কানেক্টিভিটি রয়েছে: WI-FI, Bluetooth V4, Micro USB 2.0, OTG with Reverse Charging, OTA, Wireless Display, WLAN Hotspot ইত্যাদি।

স্পেশাল ফিচারস

IR Bluster:

এই সেন্সরের মাধ্যমে আপনার স্মার্টফোন-কে রিমোর্ট কন্ট্রোল হিসেবে ইউজ করতে পারবেন।

Split Screen:

মাল্টি টাস্কিং যারা পছন্দ করেন তাদের জন্য এটা অনেক কাজে দেবে। এক সাথে একাধিক উইন্ডো অন করে কাজ করতে পারবেন।

স্ক্রিন রেকর্ডার

একটা সময় ছিলো যখন স্ক্রিন রেকর্ড করার জন্য ফোন রুট করতে হতো। এছাড়া আরো অনেক এ্যপস  যে গুলো দিয়ে স্ক্রিন রেকর্ড করা যায়। তবে বেশির ভাগই ঠিক মত কাজ করেনা। কিন্তু Primo S6 এ বিল্ট  ইন স্ক্রিন রেকর্ডার থাকায় কষ্ট করে কোন এ্যপস ইউজ করতে হবেনা।

বেঞ্চমার্ক স্কোর

স্মার্টফোনে বেঞ্চমার্ক স্কোর এখন একটা ট্রেন্ড হয়ে দাড়িয়েছে। তাই ট্রেন্ডের সাথে তাল মিলিয়ে চলুন জেনে নেই Primo S6 এর বেঞ্চমার্ক স্কোর গুলো।

দাম

Primo S6 এর বাজার মূল্য ১৫,৫৯০ টাকা।

 

 

 

 

 

মন্তব্যসমূহ