শেয়ার

লো-বাজেটে এ্যন্ড্রয়েড ফোনের স্বাদ নিতে চাইলে ওয়ালটনের নতুন এই হ্যান্ড সেটটির এক্সপিরিয়েন্স আপনারা নিতে পারেন। মাত্র ৩,০০০ টাকার মধ্যে এন্ড্রয়েড স্মার্টফোন বলা চলে কল্পনার অতীত। বিস্তারিত রিভিউ দেখতে কিছু সময় নিয়ে রেডি হয়ে যান।

প্রথমেই জেনে নেই ডিভাইসটির স্পেসিফিকেশন:

ডিভাইসের নাম Primo D8i
ডিসপ্লে: ৪” এফ ডব্লিউ ভিজিএ স্ক্রিন
প্রোটেকশন নেই
র‌্যাম ৫১২ মেগাবাইট
রম ৪ জিবি (৩২ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে)
সি.পি.ইউ ১.২ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রোসেসর
জি.পি.ইউ মালি ৪০০
ক্যামেরা রিয়্যার ৫ মেগাপিক্সেল
ফ্রন্ট ২ মেগাপিক্সেল
ব্যাটারি ১৪০০ মিলি এ্যম্পিয়ার
দাম ৩,১৫০ টাকা

ডিভাইসটির আনবক্সিং এ  আপনার জন্য রয়েছে USB Data Cable, Warranty Card with User Manual আর একটি স্ট্যান্ডার্ড ইয়ার ফোন।

Primo D8i এর ফ্রন্ট প্যানেলে ব্যবহার করা হয়েছে ৪” ডব্লিউ ভি.জি.এ স্ক্রিন। লো বাজেটের স্মার্টফোন গুলোতে এই ডিসপ্লে-ই এখন বেশি প্রচলিত।

ডিভাইসটির ফ্রন্ট প্যানেলের উপরের দিকে পাবেন ২ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামরা। ক্যামেরার পাশে পাবেন মাইক্রোফোন।

ডিভাইসটির ডান পাশে উপরের দিকে রয়েছে ভলিউম রকার্স এবং পাওয়ার বাটন। তবে ডিভাইসটির বাম পাশের অংশ টুকু ফাকা রাখা হয়েছে।

৩.৫ মিলিমিটার অডিয় জ্যাকপোর্ট এবং মাইক্রো ইউ.এস.বি চার্জিং পোর্ট রয়েছে ডিভাইসটির উপরের অংশে।

ডিসপ্লের নিচের দিকে রয়েছে ৩ টি ক্যাপাসিটিভ টাচ বাটন।

Primo D8i এর ব্যাক কভারটি বেশ নজর কেড়েছে আমার কাছে। ডিভাইসটির ব্যাক কভারটি অনেকটা লেদার কোটেড। এছাড়া হাতে নিলে অনেকটা প্রিমিয়াম লুক চলে আসে।

ব্যাক প্যানেলটা সম্পূর্ণ কার্ভড। যার ফলে হ্যান্ড গ্রিপ অনেক কম্ফোর্টেবল।

ডিভাইসটির ব্যাক প্যানেলে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ক্যামেরা কোয়ালটি মোটামুটি পর্যায়ের। তবে সবচেয়ে ভাল দিক হলো এত কম বাজেটেও ডিভাইসটিতে ফ্ল্যাশ লাইট ব্যাবহার করা হয়েছে।

ডিভাইসটির ব্যাকপার্ট টি রিমুভেবল। ব্যাটারী ব্যাকাপ পাবেন ১৪০০ মিলি এম্পিয়ার। ব্যাটারী ব্যাকাপ আমার কাছে একটু কম লেগেছে। আরো একটু ভালো ব্যাটারী ব্যাকাপ থাকতে পারতো ডিভাইসটিতে।

ডিভাইসটিতে ডাবল সীম কার্ড ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে।

৪” ডিসপ্লের ডিভাইসটির রেজুল্যুশন হলো ৮০০ X ৪০০ পিক্সেল। ডিসপ্লের ব্রাইটনেস থেকে শুরু করে কালার টোন ছিলো স্ট্যান্ডার্ড মানের। ডিসপ্লে-তে ১৬ মিলিয়ন কালার সাপোর্ট করে। তবে মাল্টি টাচ সাপোর্ট করবে সবোর্চ্চ ২টি আঙ্গুলের।

Primo D8i এ অপারেটিং সিস্টেম রয়েছে এন্ড্রয়েড মার্শম্যালো ৬.০

ইউজার ইন্টারফেস গতানতুগতিক মার্শম্যালো স্টক এন্ড্রয়েডের মতই। তবে আইকন গুলো মোডিফাইড করা হয়েছে। টাচ রেছপঞ্ছ এবং ইউ.আই ট্রানজিশন ছিলো অনেক স্মুদ।

ডিভাইসটিতে রয়েছে ও.টি.এ ফিচার। ডিভাইসটির যে কোন প্রকার অনলাইন আপডেট আসলে আপনারা নোটিফিকেশন দেখতে পাবেন।

ডিভাইসটিতে আরো পাবেন ১.২ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রোসেসর। সাথে রয়েছে মালি ৪০০ জিপিইউ।

র‌্যাম রয়েছে ৫১২ মেগাবাইট, পাশাপাশি রম রয়েছে ৪ জিবি। তবে ৩২ জিবি পর্যন্ত এক্সট্রা মেমোরী ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে।

বলতে গেলে সাধারণ মানের গেমস খেলতে হবে এই ডিভাইসটিতে। তবে টেম্পল রান টাইপ গেমস গুলো কিন্তু আমি স্মুদলি রান করতে পেরেছি।

ক্যামেরা কোয়ালিটি মোটামুটি পর্যায়ের। তবে আপনাদেরকে বলে রাখি এই বাজেটের স্মার্টফোনে এর চেয়ে ভালো ক্যামেরা কোয়ালিটি পাবেন না বলেই চলে।

আমরা ডিভাইসটির বেঞ্চমার্ক টেস্ট করেছি। চলুন এক নজরে ডিভাইসটির বেঞ্চমার্ক স্কোর গুলো দেখে নেই।

আপনারা চাইলে Primo D8 এর আগের সিরিজ গুলোর সাথে এই সিরিজের কম্পেয়ার করে দেখতে পারেন।

ডিভাইসটির মূল্য রাখা হয়েছে মাত্র ৩,১৫০ টাকা।

 

 

 

 

 

মন্তব্যসমূহ