শেয়ার

আবারো ওয়ালটন, আবারো লো-বাজেট মোবাইল। আজকে আমরা কথা বলবো ওয়ালটনের আরো একটি বাজেট বান্ধব স্মার্টফোন Primo EF6+. প্রতিনিয়ত নিত্য নতুন স্মার্টফোনের ভিরে সঠিক স্মার্টফোন বাছাই করা যেমন দূরহ কাজ, তেমনি বাজেটের দিকটাও আমাদের বিবেচনা করতে হয়। আর তাই আজকে আমি বেছে নিয়েছি একটি লো-বাজেট স্মার্টফোন, নাম Walton Primo EF6+.

ডিভাইসটি-তে ৫” ডিসপ্লের পাশাপাশি রয়েছে ১ জিবি র‌্যাম, ৮ জিবি ইন্টারনাল মেমোরী সহ আরো অনেক কিছু। চলুন বিলম্ব না করে দেখে নেই Primo EF6+ এর কনফিগারেশন।

                                    বিবরণ
                                 Primo EF6+
ডিসপ্লে ৫” ডব্লিউ ভি.জি.এ স্ক্রিন
প্রোটেকশন নেই
র‌্যাম ১ জিবি
রম ৮ জিবি (৩২ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে)
ক্যামেরা রিয়্যার ৫ মেগাপিক্সেল
ফ্রন্ট ২ মেগাপিক্সেল
প্রোসেসর ১.২ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রোসেসর
ব্যাটারি ২৩০০ মিলি এ্যম্পিয়ার
মূল্য ৪,৯৯০ টাকা।
Primo EF6+ এর সাথে  আপনারা যে সকল জিনিস পাচ্ছেন তা হলো

** ইউজার ম্যানুয়্যাল ও ওয়্যারেন্টি কার্ড।

** ইউ এস বি চার্যার

** ইয়ার ফোন

অপারেটিং সিস্টেম

ডিভাইসটি-তে ব্যবহার করা হয়েছে মার্শম্যালো অপারেটিং সিস্টেম।

ডিজাইন এবং বিল্ট কোয়ালিটি

প্রথমেই বলে নেই Primo EF6+ এর ডিজাইন Primo EF6 এর মতই। ৫” ডিসপ্লের এই মোবাইলের ফ্রন্ট প্যানেলে উপরের অংশে রয়েছে সেলফি ক্যামেরা এবং প্রক্সিমিটি সেন্সর।

এছাড়া নিচের অংশে রয়েছে টাচ নেভিগেশন প্যানেল।

পাওয়ার বাটন এবং ভলিউম রকার্স বাটন রয়েছে ডিভাইসের ডান পাশে। এছাড়া ইউ.এস.বি চার্জিং পোর্ট এবং অডিও জ্যাকপোর্ট রয়েছে ডিভাইসের উপরের অংশে। Primo EF6+ এর ব্যাক সাইড বেশ রাউন্ড হবার ফলে ডিভাইসটির হ্যান্ড ইন এক্সপিরিয়েন্স দারুন। বিশেষ করে ডিভাইসটি সিঙ্গেল হ্যান্ডেড অপারেট করা সহজ। ডিভাইসটির রিয়্যার প্যানেলে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ক্যামেরায় ডুয়াল ফ্ল্যাশ লাইট রয়েছে লো-লাইটে ছবি তোলার জন্য।

ব্যক কভারটি রিমুভেবল।রিমুভেবল কভার খুললে পাবেন ২৩০০ মিলি এ্যম্পিয়ার লি-পলিমার ব্যাটারী। এছাড়া ২টি ৩জি সিমকার্ড স্লট এবং মাইক্রো এস ডি কার্ড স্লট তো রয়েছেই।

মোবাইলটির দৈর্ঘ্য ১৪৫ মিলিমিটার, প্রস্থ্য ৭৩ মিলিমিটার এবং পুরুত্ব মাত্র  ১০.২ মিলিমিটার। এছাড়া মোবাইলটির ওজন ব্যাটারি সহ ১৫৪  গ্রাম।

ডিসপ্লে এবং টাচ কোয়ালিটি

ওয়াল্টন-কে বিশেষ ভাবে ধন্যবাদ লো-বাজেটেও ৫” ডিসপ্লে প্রোভাইড করার জন্য। Walton Primo EF6+ এর ডিসপ্লে-তে ব্যবহার করা হয়েছে ৫” ৪৮০ পিক্সেল ডিসপ্লে। ডিসপ্লে রেজুল্যুশন হলো ৮৫৪ X ৪৮০ পিক্সেল। ডিভাইসটিতে ১৬ মিলিয়ন কালার সাপোর্ট করে। ডিসপ্লে-তে মাঝে মাঝে ইউ.আই একটু ল্যাগ করেছে। তবে ওভারঅল টাচ কোয়ালিটি দারুন। আর এই মোবাইলের ডিসপ্লেতে ২ আঙ্গুল পর্যন্ত মাল্টিটাচ সাপোর্ট করে।

সি পি ইউ এবং জি পি ইউ

Walton Primo EF6+ এর ব্যবহার করা হয়েছে ১.২ গিগাহার্টজ কোয়াড কোর প্রোসেসর। এছাড়া Walton Primo EF6+ এ মালি ৪০০ জি.পি.ইউ ব্যবহার করা হয়েছে।

র‌্যাম এবং রম

Walton Primo EF6+-এ রয়েছে ১ জিবি র‌্যাম এবং ৮ জিবি ইন্টারনাল মেমোরী। ১জিবি র‌্যামের মধ্যে আপনারা ইউজার এ্যভেইলেবল র‌্যাম পাবেন ৯৫০ মেগাবাইট পর্যন্ত। আর ৮ জিবি ইন্টারনাল মেমোরীর মধ্যে আপনারা ইউজার এ্যভেইলেবল পাবেন প্রায় ৫ জিবি। এছাড়া  ৩২ জিবি পর্যন্ত এক্সটার্নাল মেমোরী ব্যবহার করার সুবিধা তো রয়েছেই।

ইউজার ইন্টারফেস

Primo EF6+ এর ইউজার ইন্টারফেস গতানুগতিক। স্টক মার্শম্যালোর ইউ.আই ব্যবহার করা হয়েছে ডিভাইসটিতে। এ্যপ ড্রয়ার এবং হোম ডিসপ্লে রাখা হয়েছে আলাদা। তবে এ্যপ ড্রয়ারের আইকন গুলো একটু বড় লেগেছে আমার কাছে। ইউ.আই আপনাদের অনেকের কাছে স্লো মনে হতে পারে। সেক্ষেত্রে আপনাদের নোভা লঞ্চার ইউজার করার জন্য আমি পার্সোনালি বলবো।

ক্যামেরা

Primo EF6+ এ ব্যবহার করা হয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল  রিয়্যার ক্যামেরা। ক্যামেরায় ডুয়াল ফ্ল্যাশ ব্যবহার করা হয়েছে। তবে সেলফি লাভার-রা একটু হতাশ হবেন। মাত্র ২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ইউজ করা হয়েছে ফ্রন্ট প্যানেলে। রিয়্যার ক্যামেরা দিয়ে তোলা ছবি দাম অনুযায়ী চলে। চলুন EF6+ দিয়ে তোলা কিছু স্থির চিত্র দেখে নেই।

রিয়্যার ক্যামেরা:

কানেক্টিভিটি ও সেন্সর

এই মোবাইলের কানেক্টিভিটির মধ্যে রয়েছে ওয়াই-ফাই, ব্লু-টুথ ভার্সন ৪, মাইক্রো ইউ এস বি ভার্সন ২, ওয়াই-ফাই হটস্পট ইত্যাদি। আর যে সকল সেন্সর ইউজ করা হয়েছে সে গুলো হলো এ্যকসেলোমিটার ৩ডি, লাইট সেন্সর, এবং প্রক্সিমিটি সেন্সর।

গেমিং পারফরমেন্স

গেমিং পারফরমেন্স মোটামুটি পর্যায়ের। টেম্পল রান, সাবওয়ে সার্ফার টাইপ গেমস গুলো ইজিলি খেলতে পারবেন। এসফাল্ট ৮ বা ফিফা টাইপ গেমস গুলো ল্যাগ করতে পারে।

ব্যাটারি ব্যাকাপ

এই মোবাইলে ব্যবহার করা হয়েছে ২৩০০ মিলি এ্যাম্পিয়ার লি-আয়ন রিমুভেবল ব্যাটারি। নরমাল ব্রাউজিং, গেমিং, কথা বলা সহ সকল কিছু করার জন্য এই ব্যাটারি ব্যাকাপ দিয়ে ৭-৮ ঘন্টা ইজিলি ব্যাটারি ব্যাকাপ পাবেন।

স্পেশাল ফিচারস

ও টি এ:

 আপনার মোবাইল অনলাইন আপডেট এর জন্য ও টি এ একটি বিশেষ সুবিধা যা বিশ্বের সকল স্মার্টফোনেই রয়েছে। কাষ্টমার কেয়ারে না গিয়ে অনলাইনে ইন্টারনেটের মাধ্যমে ডিভাইসের সফ্টওয়্যার আপডেট করতে পারবেন।

এফ.এম রেডিও:

যারা রেডিও শুনতে ভালোবাসেন তাদের জন্য রয়েছে রেকর্ডিং সুবিধা সহ এফ.এম রেডিও।

বেঞ্চমার্ক স্কোর

Primo EF6+ এর এ্যনটুটু বেঞ্চমার্ক স্কোর এসেছে ২০,১৬৮ এবং নেনামার্ক স্কোর এসেছে ৫২.১ এফ.পি.এস। এছাড়া আমরা গিকবেঞ্চ টেষ্টও করেছি। চলুন এক নজরে দেখে নেই মোবাইলের গিকবেঞ্চ স্কোর।

দাম

Primo EF6+ এর দাম ধার্য করা হয়েছে মাত্র ৪,৯৯০ টাকা। 

সিদ্ধান্ত

দামের কথা চিন্তা করলে কিন্তু Primo EF6+ এর দাম সহনীয় পর্যায়েই আছে। এছাড়া ৫০০০ টাকার মধ্যে ১ জিবি র‌্যামের মোবাইল এক সময় চিন্তাও করা যেত না। কাজেই সিন্ধান্ত আমি আপনাদের উপরেই ছেড়ে দিলাম।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

মন্তব্যসমূহ