শেয়ার

আবারো আসলাম আপনাদের সামনে আরো একটি নতুন স্মার্টফোনের হ্যান্ডস অন রিভিউ নিয়ে। ডিভাইসটির নাম Walton Primo EF5i. দাম মাত্র ৪,৩৫০ টাকা। ভাবছেন এত কম দামে স্মার্টফোন, নিশ্চয়-ই কনফিগারেশন মনের মত হবেনা। আশাহত হবেন না, ডিভাইসটিতে রয়েছে ৫” স্ক্রিন, কোয়াডকোর প্রোসেসর, ৫১২ মেগাবাইট র‌্যাম সহ আরো অনেক কিছু। চলুন একটু দেখে নেই এক নজরে Primo EF5i এর কনফিগারেশন।

                                   বিবরণ
                                Primo EF5i
ডিসপ্লে ৫” ডব্লিউ ভি.জি.এ স্ক্রিন
প্রোটেকশন নেই
র‌্যাম ৫১২ মেগাবাইট
রম ৮ জিবি (৩২ জিবি পর্যন্ত এক্সপ্যান্ডেবল
ক্যামেরা রিয়্যার ৫ মেগাপিক্সেল (বি.এস.আই সেন্সর যুক্ত)
ফ্রন্ট ২ মেগাপিক্সেল
প্রোসেসর ১.২ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রোসেসর
ব্যাটারি ২২৫০ মিলি এ্যম্পিয়ার
মূল্য ৪,৩৫০ টাকা।
মোবাইলটির সাথে আপনারা পাচ্ছেন

** স্ক্রিন প্রোটেক্টর

** ইউজার ম্যানুয়্যাল/ওয়্যারেন্টি কার্ড।

** ইউ এস বি চার্যার এ্যন্ড ডাটা কেবল

** ইয়ার ফোন

অপারেটিং সিস্টেম

Primo EF5i এ ব্যবহার করা হয়েছে এ্যন্ড্রয়েড মার্শম্যালো ৬.০ অপারেটিং সিস্টেম।

ডিজাইন এবং বিল্ট কোয়ালিটি

প্লাস্টিক ফ্রেমে তৈরী ডিভাইসটির ফ্রেম দেখে মনে হতে পারে ডিভাইসটি যেন মেটালিক ফ্রেমে বসানো, বিশেষ করে সোনালী কালারের মোবাইলটি যদি হাতে নেন তাহলে। ৫” ডিসপ্লের মোবাইলের ফ্রন্ট প্যানেলে উপরের অংশে রয়েছে ২ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা। এছাড়া প্রক্সিমিটি সেন্সরও রয়েছে।ডিভাইসটির নিচের দিকে রয়েছে অফ স্ক্রিন ৩ টি ক্যাপাসিটিভ টাচ প্যানেল।ডিভাইসটির ডান পাশে উপরের দিকে রয়েছে যথাক্রমে ভলিউম রকার্স এবং পাওয়ার বাটন। ইউ.এস.বি চার্জিং পোর্ট এবং ৩.৫ মিলিমিটার অডিও পোর্ট রয়েছে ডিভাইসের একদম উপরের অংশে।ডিভাইসটির ব্যাক প্যানেলটি বেশ হেল্পফুল। ব্যাক কভারটি স্মুদ না রেখে ডট ডট রাখা হয়েছে। ফলে হ্যান্ড গ্রিপ হবে একেবারে ইউজার ফ্রেন্ডলী। স্লিপ করার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। Primo EF5i এর ব্যাক প্যানেলে উপরের অংশে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা উইথ ডুয়াল টোন এল.ই.ডি ফ্ল্যাশ লাইট। লাউড স্পিকার পাবেন ক্যামেরার ঠিক পাশেই।

রিমুভেবল ব্যকপার্ট টি খুললেই পাবেন ২২৫০ মিলি এ্যম্পিয়ার লি-আয়ন ব্যটারী। ব্যাটারির উপরের অংশে পাবেন ২টি সিম কার্ড স্লট এবং মাইক্রো এসডি স্লট।

মোবাইলটির দৈর্ঘ্য ১৪৫ মিলিমিটার, প্রস্থ্য ৭৪ মিলিমিটার এবং পুরুত্ব মাত্র  ১০.৭ মিলিমিটার। এছাড়া মোবাইলটির ওজন ব্যাটারি সহ মাত্র ১৫৬.১  গ্রাম।

চলুন, উপরের আলোচনা গুলো একটু মিলিয়ে দেখি।

ডিসপ্লে এবং টাচ কোয়ালিটি

Walton Primo EF5i এর ডিসপ্লে-তে ব্যবহার করা হয়েছে ৫” এফ. ডব্লিউ.ভি.জি.এ স্ক্রিন। ডিভাইসটির ডিসপ্লে রেজুল্যুশন রয়েছে ৮৫৪ X ৪৮০ পিক্সেল।  ডিসপ্লেতে কোন প্রকার   প্রোটেকশন ব্যবহৃত হয়নি।  ডিসপ্লের ভিউয়িং এঙ্গেল মোটামুটি পর্যায়ের। তবে ডিসপ্লে-তে ব্লুয়িশ একটা টোন লক্ষ করেছি। যে বিষয়টা ভালো লেগেছে তা হলো ডিসপ্লের ব্রাইটনেস অনেক বেশি। বিশেষ করে দিনের আলোতে ডিসপ্লে ভিউয়িং খুব-ই ভালো। এই মোবাইলের ডিসপ্লেতে ২ আঙ্গুল পর্যন্ত মাল্টিটাচ সাপোর্ট করে।

সি পি ইউ এবং জি পি ইউ

Walton Primo EF5i এর ব্যবহার করা হয়েছে ১.২ গিগাহার্টজ কোয়াড  কোর প্রোসেসর, এবং মালি ৪০০ জি.পি.ইউ।

র‌্যাম এবং রম

Primo EF5i এ রয়েছে ৫১২ মেগাবাইট র‌্যাম এবং ৮ জিবি ইন্টারনাল মেমোরী।

ইউজার ইন্টারফেস

লো-বাজেটের মোবাইল গুলোর ইউ.আই কেনো জানি আমার খুব একটা ভালো লাগেনা। কেননা স্টক ইউজার ইন্টারফেস খুব-ই গতানুগতিক লাগে আমার কাছে। ঘুরেফিরে ষ্টক ইউজার ইন্টারফেস। এই বিষয়ে ওয়ালটন কর্তৃপক্ষের একটু নজর দেয়া উচিৎ। ডায়াল প্যাড, নোটিফিকেশন বার থেকে শুরু করে সকল স্তরেই পাবেন ষ্টক মার্শম্যালোর টেস্ট। তবে বিভিন্ন থার্ডপার্টি লঞ্চার  ইউজ করার সুবিধা থাকায় মোবাইলের লুকস কিছুটা হলেও পরিবর্তন করা যাবে।

ক্যামেরা

Primo EF5i এর রিয়্যার ক্যামেরায় রয়েছে বি.এস.আই সেন্সর যুক্ত ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। শুধু তাই নয়, অল্প আলো এবং অন্ধকারে ভালো মানের ছবি তোলার জন্য রয়েছে ডুয়াল টোন এল.ই.ডি ফ্ল্যাশ লাইট। আর যারা সেলফি তুলতে ভালোবাসেন তাদের জন্য ফ্রন্ট প্যানেলে রয়েছে বি.এস.আই সেন্সর যুক্ত ২ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা। ক্যামেরা কোয়ালিটি ডিভাইসের দাম অনুসারে রিজোনেবল। চলুন মোবাইল দিয়ে তোলা কিছু স্থির চিত্র দেখে নেই।

কানেক্টিভিটি ও সেন্সর

এই মোবাইলের কানেক্টিভিটির মধ্যে রয়েছে ওয়াই-ফাই, ব্লু-টুথ ভার্সন ৪, মাইক্রো ইউ এস বি ভার্সন ২, ওয়াই-ফাই হটস্পট ইত্যাদি।

Primo EF5i এ খুব বেশি সেন্সর ইউজ করা হয়নি। এ্যকসেলোমিটার ৩ডি এবং প্রক্সিমিটি সেন্সর রয়েছে ডিভাইসটিতে।

গেমিং পারফরমেন্স

গেমিং পারফরমেন্স নিয়ে হতাশ হবার কিছু নেই। লো-রেজুল্যুশন  এবং কম যায়গা দখল করে এই রকম সকল গেমসই আপনারা খেলতে পারবেন।

ব্যাটারি ব্যাকাপ

এই মোবাইলে ব্যবহার করা হয়েছে ২২৫০ মিলি এ্যাম্পিয়ার লি-আয়ন রিমুভেবল ব্যাটারি। হেভি ইউজ হয়তো করতে পারবেন না, তবে যেই ব্যাটারী ব্যাকাপ আছে তা দিয়ে ইন্টারনেট সার্ফিং, গেমিং, কথা বলা সহ সকল কিছু করার জন্য প্রায় ৭-৮ ঘন্টা ব্যাটারি ব্যাকাপ  পাবেন।

স্পেশাল ফিচারস

ও টি এ:

ও.টি.এ এমন একটি ফিচার যার মাধ্যমে আপনারা ডিভাইসের সফ্টও্য়্যার আপডেট করতে পারবেন এখন অনলাইনেই। এ জন্য আপনাকে শুধুমাত্র মোবাইলের ডাটা/ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক ইউজ করতে হবে।

বেঞ্চমার্ক স্কোর

আমরা ডিভাইসটির  এ্যন্টুটু এবং নেনামার্ক টেষ্ট করেছি। Primo EF5i এর এ্যনটুটু বেঞ্চমার্ক স্কোর এসেছে ১৭,২২০ এবং নেনামার্ক স্কোর এসেছে ৫৩.০ এফ.পি.এস। ডিভাইসের দাম অনুসারে কিন্তু স্কোর মান সম্মত।

দাম

Primo EF5i স্মার্টফোনটি কিনতে হলে আপনাকে ৪,৩৫০ টাকা খরচ করতে হবে। আর উপরের আলোচনা থেকে বুঝতেই পারছেন ডিভাইসের কনফিগারেশন যথেষ্ট্য মানানসই।

সিদ্ধান্ত

স্মার্টফোন কেনার ব্যপারে আমি আপনাদের সকলের সিদ্ধান্ত-কে আমি ব্যক্তিগত ভাবে শ্রদ্ধা করি। তবে এটা বলতে পারি, এই দামে এত ফিচার সম্পন্ন মোবাইল পাওয়াটা অনেকটা লাকের ব্যাপার।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

মন্তব্যসমূহ