শেয়ার
Xiaomi Redmi 4A

 

বর্তমান স্মার্টফোন বাজারে শাওমির সবথেকে কম মূল্যের ডিভাইসটি হল Redmi 4A। এটি রিলিজ হয়েছিল ২০১৬ সালের নভেম্বর মাসে। বাংলাদেশে এবছরের জানুয়ারি মাস থেকেই পাওয়া যাচ্ছে যা গ্লোবাল ভার্সন নামে পরিচিত। ডিভাইসটির বর্তমান বাজারমূল্য ১০,৪৯০ টাকা।

এবার আসুন, এক নজরে দেখে নেওয়া যাক ডিভাইসটির স্পেসিফিকেশন,
 Qualcomm Snapdragon 425 Processor
 Adreno 308 GPU
 5" IPS LCD Display
 2 GB RAM, 16 GB ROM
 13 MP / 5MP Camera
 3120 Non-Removable Li-Ion Battery
 MIUI 8 ( Android 6.0)
 Dual 4G Sim support
ডিভাইসটির সাথে যা থাকছেঃ

1. মোবাইল হ্যান্ডসেট
2. চার্জার ও অ্যাডাপ্টার
3. ইউজার ম্যানুয়াল, ওয়ারেন্টি কার্ড ও একটি সিম ইজেক্টর পিন।

বিল্ড কোয়ালিটি

নন-রিমুভাবল ব্যাটারি দেখে যারা ভাবছেন এর ব্যাক মেটাল হবে তাদেরকে কষ্ট দিয়ে বলতেই হচ্ছে এর ব্যাক প্লাস্টিকের!😛তবে প্লাস্টিক বডি হলেও এর লুক, ফিনিসিং একদম চমৎকার যার ফলে হাতে নিয়ে অন্যরকম ফিল পাওয়া যায়।
😎
ডিভাইসটির সামনে রয়েছে 5″ ডিসপ্লে, সেলফি ক্যামেরা, ফোনস্পিকার ও ন্যাভিগ্যাশন বাটন ও নোটিফিকেশন লাইট।

ডান সাইডে রয়েছে ভলিউম রকারস ও পাওয়ার বাটন।

বাম সাইডে রয়েছে সিম স্লট।

উপরে রয়েছে IR সেন্সর, সেকেন্ডারি মাইক্রোফোন এবং নিচে রয়েছে মাইক্রো ইউএসবি চার্জিং পোর্ট ও প্রাইমারি মাইক্রোফোন।

ব্যাকে টপ লেফ্ট কর্ণারে রয়েছে রেয়ার ক্যামেরা ও LED ফ্ল্যাশ এবং বটম মিডিলে রয়েছে লাউডস্পিকার।


ডিভাইসটি খুব হালকা এবং এর ওজন 131.5g
বডি ডাইমেন্সন 139.5×70.4×8.5mm

ফোনটিতে হাইব্রিড সিম স্লট ব্যবহার করা হয়েছে। যার ফলে দ্বিতীয় সিম অথবা মেমোরি কার্ড এর যে কোন একটা আপনারা সুুবিধা মতো ব্যবহার করতে পারবেন। অর্থাৎ ডুয়াল সিম ও মেমোরি কার্ড একসাথে ব্যবহার করা যাবেনা। তবে সিম কাস্টোমাইজ করে ডুয়াল সিম ও মেমোরি কার্ড একসাথে ব্যবহার করা যায়, কিন্ত তাতে সিম নষ্ট হবার আশংকাই বেশি।

ইউজার ইন্টারফেস ও অপারেটিং সিস্টেম

অপারটিং সিস্টেম হিসেবে এতে রয়েছে Android 6.0 Marshmallow। তবে ফোনটি চলবে শাওমির নিজস্ব কাস্টমাইজড এন্ড্রয়েড ওস MIUI 8 এ।
MIUI 8 নিয়ে জানতে হলে Click here

ডিসপ্লে ও টাচ

720×1280 পিক্সেলের 5″ IPS LCD ব্যবহার করা হয়েছে এতে যার পিপিআই মাত্র 294 । ডিসপ্লে প্রোটেকশন বলতে কিছু নেই।
5″ ডিসপ্লের এ ডিভাইসটি এক হাতে অনায়সে ব্যবহার করা যায়।
ডিভাইসটি ১০ আঙ্গুল পর্যন্ত মাল্টিটাচ সাপোর্ট করে।

ক্যামেরা

ডিভাইসটির রেয়ার ক্যামেরা ১৩ মেগাপিক্সলের (f/2.2)
এতে অটোফোকাস ফিচার রয়েছে। সাথে রয়েছে একটি এলইডি ফ্লাশ। Resolution 4160×3120..

সেলফিবাজদের জন্য রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেলের (f/2.2) একটি সেলফি ক্যামেরা।


ছবির মান নির্ণয় করতে গেলে বলা যায়, দিনের আলোতে এ ডিভাইসির ক্যামেরা ভালো ছবি তুললেও রাতের ছবিতে নয়েজ বেশি থাকে। থাকাটা অস্বাভাবিকও না। দশ হাজারের ডিভাইসে তো আর GalaxyS7 এর ক্যামেরা আশা করা যায়না। 😛

ব্যাটারি

এতে 3120mAh নন-রিমুভাবল লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে। ব্যাটারি ব্যাকআপ যথেষ্ট ভাল ডিভাইসটির। প্রায় দুঘন্টার মত সময়েই ব্যাটারি ফুল চার্জ হয়ে যায়। নরমালি এক চার্জে একদিন শান্তিপূর্ণভাবে ডিভাইসটি ব্যবহার করা যাবে। স্ট্যান্ড বাই প্রায় ২দিন। তবে থ্রিজি নেটওয়ার্কে একটু ড্রেইন হয় বেশি।

পারফর্মেন্স

ডিভাইসটিতে 1.4GHz Quad Core Processor ব্যবহার করা হয়েছে Qualcomm Snapdragon 425 Chipset এর সাথে। ২ জিবি র্যামের সাথে কুয়াড কোর প্রসেসর যথেষ্ট ভিডিও, অ্যাপ্লিকেশন স্মুথলি চালানোর জন্য।
আমি কিছু এইচডি গেম খেলে দেখেছি এতে যা কোনরকম ল্যাগ ছাড়ায় খেলা সম্ভব হয়েছে।
এর Benchmarks,

কানেক্টিভিটি, সেন্সর, সাউন্ড

ডিভাইসটিতে ওয়াইফাই, ব্লুটুথ ভার্সন 4.1, মাইক্রো ইউএসবি, ওটিজি ইত্যাদি রয়েছে।
সেন্সর হিসেবে রয়েছে, এ্যকসেলেরমিটার, গাইরোস্কোপ, প্রক্সিমিটি ও কম্পাস সেন্সর।
ডিভাইসটিতে ফিঙ্গার প্রিন্ট নেই।
সাউন্ডের ক্ষেত্রে, এর লাউডস্পিকার যথেষ্ট শার্প এবং লাউডের মাত্রাও সন্তোষজনক।

দাম

বাংলাদেশে ডিভাইসটির মূল্য ১০ হাজার ৪৯০ টাকা।
এদেশে শাওমির একমাত্র ডিস্ট্রিবিউটর Solar Electro Bangladesh Limited (SEBL) ডিভাইসটির সাথে দিচ্ছে ২ বছরের অফিসিয়াল ওয়ারেন্টি।
ফোনটি পাওয়া যাচ্ছে গোল্ড, রোজ গোল্ড ও গ্রে কালারে।

বিস্তারিতঃ Click here

পরিশেষে, সব দিক থেকে বলতে গেলে সাড়ে দশ হাজারে ডিভাইসটি বেস্ট মনে হয়েছে আমার কাছে।
যদি সাড়ে দশ হাজার বাজেটে স্মার্টফোন কিনতে চান তবে কিনতে পারেন ডিভাইসটি।  ফিঙ্গার প্রিন্ট না থাকার জন্য হয়ত একটু আউটডেটেড লাগতে পারে। কিন্তু এ দামে এ ডিভাইস এর পারফর্মেন্স সত্যি প্রশংসনীয়। 

 

যে কোন প্রয়োজনে আমাকে ফেসবুকে নক করুনঃ Abdullah Al Akib

ছবি তুলতে সহায়তা করেছেনঃ Kowshik Mahmud

Xiaomi T-Shirt from Durmart

 

ধন্যবাদ সবাইকে। 

 

 

মন্তব্যসমূহ