শেয়ার

স্মার্টফোন কিনবেন কিন্তু বাজেট আপনাকে চিন্তায় ফেলে দিয়েছে। চিন্তার কিছু নেই। আপনাদের জন্য রয়েছে দেশীয় মোবাইল কোম্পানী ওয়াল্টন। নানা রঙের, ভিন্ন ভিন্ন বাজেটের আর নানান বয়সের মানুষের জন্য স্মার্টফোন তৈরী করে আসছে ওয়াল্টন। সেই ধারাবাহিকতায় ওয়াল্টন ফ্যামিলিতে যোগ হলো মিড রেঞ্জ প্রাইজের দুটো মোবাইল Primo NH2 & NH2 Lite. দুটো ডিভাইসের মধ্যে দাম এবং কনফিগারেশনর মধ্যে হালকা পার্থক্য রয়েছে। চলুন বিলম্ব না করে দুটো ডিভাইসের বিস্তারিত বর্ণনায় যাওয়া যাক।

                                 স্পেসিফিকেশন
বিবরণ Primo NH2 Primo NH2 Lite
ডিসপ্লে ৫.৫” এইচ.ডি  আই. পি. এস ডিসপ্লে ৫.৫” এইচ.ডি আই. পি. এস ডিসপ্লে
প্রোটেকশন গরিলা গ্লাস ২ গরিলা গ্লাস ২
রেজুল্যুশন ১২৮০ x ৭২০ পিক্সেল ১২৮০ x ৭২০ পিক্সেল
ও.এস এ্যন্ড্রয়েড ৬.০ মার্শম্যালো এ্যন্ড্রয়েড ৬.০ মার্শম্যালো
প্রোসেসর ১.৩ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রোসেসর ১.৩ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রোসেসর
জি পি ইউ মালি ৪০০ মালি ৪০০
র‌্যাম ২ জিবি ১ জিবি
রম ১৬ জিবি (৬৪ জিবি পর্যন্ত বৃদ্ধি করা যাবে) ৮ জিবি (৬৪ জিবি পর্যন্ত বৃদ্ধি করা যাবে)
ক্যামেরা ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়্যার, ৫ মেগাপিক্সেল সেলিফি ৮ মেগাপিক্সেল রিয়্যার, ৫ মেগাপিক্সেল সেলিফি
ব্যাটারি ২৮০০ মিলি এ্যম্পিয়ার ২৮০০ মিলি এ্যম্পিয়ার
দাম ৭৩৯০ টাকা ৫৭৯০ টাকা
Primo NH2 এবং Primo NH2 LITE দুটো ডিভাইসের সাথে আপনারা যা পাচ্ছেন:
  • চার্জার অ্যাডাপ্টার ও ডাটা কেবল
  • ইয়ারফোন
  • ইউজার ম্যানুয়াল এবং ওয়ারেন্টি কার্ড
অপারেটিং সিস্টেম

দুটো ডিভাইসেই ব্যবহার করা হয়েছে এ্যন্ড্রয়েড মার্শম্যালো ৬.০ অপারেটিং সিস্টেম।

বিল্ট কোয়ালিটি

Primo NH2 এবং Primo NH2 LITE এর বডি ডাইমেনশন এবং বিল্ট ইন কোয়ালিটি সেইম রাখা হয়েছে। ডিভাইস গুলোর শাইনি আর গ্লসি লুক ডিভাইস গুলোর লুক দামের তুলনায় যথেষ্ট্য স্ট্যান্ডার্ড মনে হবে। প্লাষ্টিক মেইড ডিভাইস গুলোর বডি ডাইমেনশন হলো  দৈর্ঘ্য ১৫২ মিলিমিটার, প্রস্থ্য ৮০ মিলিমিটার এবং পুরুত্ব ১২ মিলিমিটার। আর ব্যাটারি সহ ডিভাইসটির ওজন মাত্র ১৭২.৫  গ্রাম।ডিসপ্লের উপরের দিকে বাম পাশে রয়েছে সেলফি ফ্ল্যাশ লাইট, মাঝ বরাবার রয়েছে প্রক্সিমিটি সেন্সর এবং তার পাশেই রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা।ডিসপ্লের বাম পাশে উপরের দিকে রয়েছে রিঙ্গার স্লাইডিং বাটন যার মাধ্যমে আপনার ডিভাইসটি সাইলেন্ট অন/অফ করতে পারবেন।দুটো ডিভাইসেই রয়েছে রয়েছে ৫.৫”  এইচ.ডি ডিসপ্লে। ডিসপ্লের প্যানেল হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে আই.পি.এস টেকনোলজি। ডিভাইস গুলোর ফ্রন্ট প্যানেলে নিচের দিকে রয়েছে ৩টি সফ্ট ক্যাপাসিটিভ টাচ প্যানেল।এছাড়া ডান দিকে উপরের দিকে পাবেন ভলিউম রকারস এবং পাওয়ার বাটন।এছাড়া অডিও এবং মাইক্রো ইউ.এস.বি চার্জিং পোর্ট রয়েছে ডিভাইসের উপরের অংশে।ক্যামেরার ক্ষেত্রে অবশ্য একটু পার্থক্য রয়েছে। Primo NH2 ডিভাইসে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়্যার ক্যামেরা এবং NH2 Lite এ রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল রিয়্যার ক্যামেরা। দুটো ডিভাইসেই ব্যাটারি সেইম ব্যাটারি ব্যাকাপ পাবেন, ২৮০০ মিলি এ্যম্পিয়ার। আরো রয়েছে ডুয়াল সিম কার্ড। রয়েছে  ৬৪ জিবি অতিরিক্ত মেমোরী কার্ড ব্যবহারের সুবিধা।

ইউজার ইন্টারফেস

ডিভাইস গুলোর ইউজার ইন্টারফেস গতানুগতিক। ব্যবহার করা হয়েছে গুগলের স্টক মার্শম্যালো ইউজার ইন্টারফেস। আশা থাকবে স্টক ইউ.আই থেকে বের হয়ে এসে স্টাইলিশ কিছু ইউ.আই ব্যবহার করা।

র‌্যাম এবং রম

 Primo NH2 এবং PRIMO NH2 LITE এ রয়েছে যথাক্রমে ২ জিবি এবং ১ জিবি র‌্যাম। ডিভাইস দুটির দামের পার্থক্য প্রায় ১৫০০ টাকা। কাজেই এতটুকু তফাৎ তো থাকবেই। ইন্টারনাল মেমোরীও রয়েছে ১৬ জিবি এবং ৮ জিবি করে। প্লাস পয়েন্ট হলো ইন্টারনাল মেমোরী ৬৪ জিবি পর্যন্ত ব্যবহার করা যাবে।

সি.পি.ইউ এবং জি.পি.ইউ:

ডিভাইসট দুটোতে সেইম প্যারামিটারের সি.পি.ইউ এবং জি.পি.ইউ  ব্যবহার করা হয়েছে । আরো পাবেন ১.৩ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রোসেসর এবং মালি ৪০০ জি.পি.ইউ।

ডিসপ্লে এবং টাচ

 Primo NH2এবং PRIMO NH2 LITE এ রয়েছে ৫.৫” এইচ.ডি আই.পি.এস ডিসপ্লে যার রেজুল্যুশন হলো ১২৮০ x ৭২০ পিক্সেল। ডিসপ্লে প্রোটেকশনের জন্য রয়েছে গরিলা গ্লাস ২ টেকনোলজি। এছাড়া ডিসপ্লেতে  ২ আঙ্গুল পর্যন্ত মাল্টি টাচ সাপোর্ট করে।

ক্যামেরা

Primo NH2এবং PRIMO NH2 LITE এর ক্যামেরায় কিছুটা পার্থক্য রয়েছে। Primo NH2’র রিয়্যার ক্যামেরায় রয়েছে অটোফোকাস বি.এস.আই ১৩ মেগাপিক্সেল এবং Primo NH2 Lite এ ব্যবহার করা হয়েছে বি.এস.আই ৮ মেগাপিক্সেল রিয়্যার ক্যামেরা। আরো রয়েছে উজ্বল ফ্ল্যাশ লাইট। এছাড়া সেলফি তোলার জন্য দুটো ডিভাইসেই পাবেন ৫ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। ক্যামেরা কোয়ালিটি দাম আর ফিচার অনুযায়ী বেষ্ট। চলুন ক্যামেরার ফিচার গুলো দেখে নেই।ক্যামেরা কোয়ালিটি যথেষ্ট্য ভালো মানের। এক নজরে দেখে নেই ক্যামেরা দিয়ে তোলা কিছু স্থির চিত্র।

NH2:

NH2 Lite:

বেঞ্চমার্ক

আমরা ডিভাইস দুটোর বেঞ্চমার্ক টেষ্ট করে দেখেছি।  Primo NH2 এর এ্যনটুটু এবং নেনামার্ক স্কোর এসেছে যথাক্রমে ২৩,১৮৮ এবং ৫১.২ এফ পি এস।এছাড়া এর Primo NH2 Lite এর এ্যনটুটু এবং নেনামার্ক স্কোর হলো ১৮,৫৮৯ এবং ৫৫.৭ এফ পি এস।

কানেক্টিভিটি এবং সেন্সর

ডিভাইস গুলোতে যে সকল কানিক্টিভিটি রয়েছে তা হলো: ওয়াই-ফাই, ব্লু-টুথ ভার্সন ৪, মাইক্রো ইউ.এস.বি ভার্সন ২, ও.টি.এ এবং ডব্লিউ ল্যান হটস্পট ইত্যাদি। এছাড়া প্রক্সিমিটি, লাইট  আর এ্যকসেলোমিটার ৩ডি সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে।

কম্পেয়ার

আপনারা চাইলে ডিভাইস দুটোর পাশাপাশি কম্পারিজন দেখে নিতে পারেন।

ওটিএ

Primo NH2 এবং NH2 Lite দুটো ডিভাইসেই আপনারা ও.টি.এ (Over The Air) বা অনলাইন আপডেট সুবিধা পাবেন।

গেমিং এক্সপিরিয়েন্স

দুটো ডিভাইসেই আপনারা ভালো কোয়ালিটির এইচ.ডি গেমস খেলতে পারবেন। বিশেষ করে Primo NH2-তে ২ জিবি র‌্যাম হওয়ায় যে কোন ধরনের হাই-এন্ড গেমস বিশেষ করে মডার্ণ কম্ব্যাট ৪, ফিফা ১৬ থেকে শুরু করে সকল গেমস-ই খেলতে পারবেন।

দাম

দামের ক্ষেত্রে অবশ্য একটু পার্থক্য রয়ে গেছে। র‌্যাম এবং ক্যামেরা সেন্সর বেশি হওয়ায় Primo NH2’র দাম ৭,৩৯০ টাকা। আর র‌্যাম এবং ক্যামেরা কম থাকায় Primo NH2 Lite’র মূল্য ধরা হয়েছে ৫,৭৯০ টাকা।

 

মন্তব্যসমূহ