শেয়ার

ক্রেতাদের কাছে কম দামে বাজেট বান্ধব এবং মান সম্মত স্মার্টফোন পৌছে দিতে ওয়াল্টন প্রতিজ্ঞা বদ্ধ। শুধু দামে কম নয়, ভালো কোয়ালিটির স্মার্টফোনও একটা বিশাল ব্যাপার। আজকে আপনাদের সাথে শেয়ার করবো ২টি নতুন ডিভাইস Primo EF4 এবং EF4+ এর হ্যান্ডস অন রিভিউ। মাত্র ৪৫০০ টাকার মধ্যেই ১ জিবি র‌্যাম ৮ জিবি রমের স্মার্টফোন এক সময়ে ছিলো কল্পনার বাইরে। ওয়াল্টন এর বদৌলতে এখন এটা আমরা বাস্তবেই ভাবতে পারি। ডিভাইস ২টিতে রয়েছে যথাক্রমে ৫১২ মেগাবাইট এবং ১ জিবি র‌্যাম। ইন্টারনাল মেমোরী দেয়া হয়েছে ৮ জিবি। ২টি ডিভাইসেই আপনারা পাবেন ১.২ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রোসেসর। ডিভাইস ২টাতে রয়েছে ২৩০০ মিলি এ্যম্পিয়ার লি-আয়ন ব্যাটারি। Primo EF4 এবং EF4+ এর দাম যথাক্রমে ৩,৩৯০ এবং ৪,৫৯০ টাকা। যাদের বাজেট একদম-ই কম, তাদের জন্য এই ডিভাইস ২টি হবে বাজারের সেরা মোবাইল।  ডিভাইস ২টির কনফিগারেশন গুলো দেখে নেই এক নজরে।

বিবরণ Primo EF4 Primo EF4+
ডিসপ্লে ৫” এফ ডব্লিউ ভি জি এ স্ক্রিন ৫” এফ ডব্লিউ ভি জি এ স্ক্রিন
রেজুলুশ্যন ৮৫৪ X ৪৮০ পিক্সেল ৮৫৪ X ৪৮০ পিক্সেল
প্রোটেকশন নেই নেই
ও.এস মার্শম্যালো ৬.০.১ মার্শম্যালো ৬.০.১
র‌্যাম ৫১২ মেগাবাইট ১ জিবি
রম ৮ জিবি ৮ জিবি
ক্যামেরা ৫ মেগাপিক্সেল রিয়্যার, ২ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ৫ মেগাপিক্সেল রিয়্যার, ২ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট
প্রোসেসর ১.২ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর ১.২ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর
জি পি ইউ মালি ৪০০ মালি ৪০০
ব্যাটারি ২৩০০ মিলি এ্যম্পিয়ার ২৩০০ মিলি এ্যম্পিয়ার
দাম ৩,৩৯০ টাকা। ৪,৫৯০ টাকা।
রঙ কালো, সোনালী এবং সাদা কালো, সোনালী এবং সাদা
ডিভাইস ২টির সাথে যা পাচ্ছেন
  • চার্জার অ্যাডাপ্টার ও ডাটা ক্যাবল
  • ইয়ারফোন
  • ইউজার ম্যানুয়াল এবং ওয়ারেন্টি কার্ড
  • স্ক্রিন পোটেক্টর
অপারেটিং সিস্টেম

ডিভাইস গুলোতে রয়েছে মার্শম্যালো ৬.০.১ এ্যন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম।14445884_1163650777036034_484593757_n-png

বিল্ট কোয়ালিটি

ডিভাইস ২টি প্লাষ্টিক মেইড হলেও পেছনের ব্যাক কভারের জন্য ডিভাইসটির লুক বেশ প্রিমিয়াম। শুধু তাই নয়, ডিভাইস ২টির বডি ডাইমেনশনও সেইম। ডিভাইস গুলোর দৈর্ঘ্য যথাক্রমে ১৪৫.০৯ মিলিমিটার, প্রস্থ্য ৭৩.২৮ মিলিমিটার এবং পুরুত্ব ১০.৩৫ মিলিমিটার। শুধু তাই নয়, ব্যাটারি সহ ডিভাইসের  ওজন ১৫৫ গ্রাম।

screenshot_1

ডিভাইসটির ডিসপ্লে ম্যাটেরিয়াল হিসেবে রয়েছে ৫” এফ.ডব্লিউ.ভি.জি.এ  স্ক্রিন। ডিসপ্লে’র উপরের অংশে রয়েছে ২ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা এবং প্রক্সিমিটি সেন্সর।screenshot_20ডিসপ্লের নিচের অংশে ৩টি ক্যাপাসিটিভ টাচ প্যানেল রয়েছে।screenshot_19ডিসপ্লের একদম উপরের অংশে রয়েছে মাইক্রো ইউ এস বি চার্জিং পোর্ট এবং ৩.৫ মিলিমিটার অডিও জ্যাকপোর্ট।screenshot_2 screenshot_12ডিভাইস ২টির রাইট প্যানেলে রয়েছে ভলিউম রকার্স এবং পাওয়ার বাটন।screenshot_10রিমুভেবল ব্যাকপার্ট-টা মূলত অনেকটা লেদার কোটেড। মূলত এই ব্যকপার্টের কারণেই ডিভাইসের লুকস অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। ডিভাইসটির পেছনে ডুয়াল এল.ই ডি ফ্ল্যাশ সহ ৫ মেগাপিক্সেল রিয়্যার ক্যামেরা রয়েছে। লাউড স্পিকার রয়েছে ক্যামেরার ঠিক পাশেই।screenshot_11 screenshot_1ব্যাকপার্ট খুললে পাবেন ২৩০০ মিলি এ্যম্পিয়ার লি-আয়ন ব্যাটারি। ২টি ৩জি সিম কার্ড এবং একটি মেমোরী কার্ড স্লট রয়েছে ব্যাটারির উপরের অংশে।screenshot_22 screenshot_21

ইউজার ইন্টারফেস

Primo EF4 এবং EF4+ ডিভাইস ২টিতে পাবেন সেইম ইউজার ইন্টারফেস। ষ্টক মার্শম্যালো ইউ.আই ব্যবহার করা হয়েছে ডিভাইস গুলোতে। ইউ.আই নিয়ে বেশি কিছু বলার নেই। ট্র্যানজিশন ছিলো বেশ স্মদু এবং ল্যাগ ফ্রি।

র‌্যাম এবং রম

Primo EF4 এবং EF4+ এর র‌্যাম এবং রম যথাক্রমে ৫১২মেগাবাইট/ ৮ জিবি এবং ১ জিবি/৮ জিবি। আর অতিরিক্ত মেমোরী কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন ৩২ জিবি পর্যন্ত।hgf

সি.পি.ইউ এবং জি.পি.ইউ

Primo EF4 এবং EF4+ ডিভাইস ২টিতে রয়েছে ১.২ গিগাহার্টজ কোয়াড কোর  প্রোসেসর, সাথে রয়েছে মালি ৪০০ জি পি ইউ।pixlr

ডিসপ্লে এবং টাচ

ডিভাইস ২টির ডিসপ্লেতে ব্যবহার করা হয়েছে ৫” এফ.ডব্লিউ.ভি.জি.এ স্ক্রিন, যার রেজুল্যুশন হলো ৮৫৪ X ৪৮০ পিক্সেল। ডিসপ্লে-তে কোন প্রোটেকশন না থাকায় স্ক্রিন প্রোটেক্টর ব্যবহার করা বাঞ্ছনীয়।  ডিসপ্লে-তে ২ আঙ্গুল পর্যন্ত মাল্টি টাচ সাপোর্ট করে। আরো রয়েছ মিরাভিশন প্রযুক্তি। যার ফলে ডিসপ্লে’র কনট্রাষ্ট চুজ করে নিতে পারবেন আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী।

ক্যামেরা

Primo EF4 এবং EF4+ এ ক্যামেরা রয়েছে যথাক্রমে ৫ মেগাপিক্সেল রিয়্যার এবং ২ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা। আর এই ২টি ডিভাইসেই এইচ ডি ভিডিও (১২৮০ x ৭২০ পিক্সেল) রেকর্ডিং+ প্লেব্যাক করতে পারবেন। চলুন ডিভাইস দিয়ে তোলা কিছু স্থির চিত্র দেখে নেই।
screenshot_24 screenshot_23 screenshot_2ddd3

বেঞ্চমার্ক

আমরা মোবাইল ২টির বেঞ্চমার্ক টেস্ট করে দেখেছি। মোবাইল ২টির  এ্যনটুটু বেঞ্চমার্ক স্কোর এসেছে  যথাক্রমে ১৭,৩৩০ এবং ১৮৩৪৫।  এছাড়া ডিভাইসটির নেনামার্ক স্কোর এসেছে যথাক্রমে ৫২.২ এবং ৫১.৩ এফ পি এস।pixlr_20160926205135861

কানেক্টিভিটি এবং সেন্সর

ডিভাইস গুলোতে যে সকল কানিক্টিভিটি রয়েছে তা হলো: ওয়াই-ফাই, ব্লু-টুথ ভার্সন ৪,  মাইক্রো ইউ.এস.বি, ও.টি.এ,  ডব্লিউ ল্যান হটস্পট ইত্যাদি। আর যে সকল সেন্সর রয়েছে তা হলো: এ্যকসেলোমিটার, লাইট, প্রক্সিমিটি সেন্সর।

ওটিএ

ডিভাইসের সকল আপডেট ও.টি.এ’র মাধ্যমে অনলাইনেই করতে পারবেন।

গেমিং এক্সপিরিয়েন্স

সাবওয়ে সার্ফার এর সকল ভার্সন, রেইল র‌্যাশ, টম্ব ইস্কেপ রিপটাইড জিপি, এসফাল্ট ৮ গেমস গুলো রান করেছি। EF4 এ এসফাল্ট ৮ ল্যাগ করেছে র‌্যাম কম থাকায়।pixlr

ব্যাটারি

ডিভাইস ২টিতে ব্যবহার করা হয়েছে রয়েছে রিমুভেবল ২৩০০ মিলি এ্যম্পিয়ার লি-আয়ন ব্যাটারি।

মূল্য

ডিভাইসটির মূল্য যথাক্রমে:

  • Primo EF4: ৩,৩৯০ টাকা।
  • Primo EF4+ : ৪,৫৯০ টাকা।
সিদ্ধান্ত

 

বাজেটের অভাবে যারা স্মার্টফোন কিনতে পারেন না, তারা অন্তত এই ডিভাইস ২টি দেখতে পারেন। দামেও কম আবার হাতের নাগালেও আছে।

 

 

 

 

 

মন্তব্যসমূহ