শেয়ার

প্রথমেই দেরীতে পোস্ট করার জন্য ক্ষমা চেয়ে নিলাম। শত জল্পনা-কল্পনা-গুজব এর অবসান ঘটিয়ে শেষমেশ জনসমক্ষে প্রকাশিত হল বিশ্বখ্যাত ব্র্যান্ড স্যামসাংয়ের সর্বনতুন ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন Samsung Galaxy S6 এবং Samsung Galaxy S6 EDGE এর। গত ১ মার্চ বাংলাদেশ সময় রাত আনুমানিক পৌনে বারটার (১১.৪৫ মিনিট) দিকে বার্সেলোনায় অনুষ্ঠিত হওয়া Mobile World Congress (MWC)-2015 এ স্যামসাং এর CEO Dr. Oh-Hyun Kwon এর হাতে জনসমক্ষে বেরিয়ে আশে বহুল আলোচিত এ স্মার্টফোন যা বর্তমানে বিশ্বের সর্বাধুনিক স্মার্টফোনসমূহের একটি। ফোনটির ফিচার নিয়ে পরবর্তীতে স্যামসাংয়ের Invention Team সহ বিভিন্ন টিমের কর্মকর্তারা বক্তব্য রাখেন। সম্পুর্ণ অনুষ্ঠানটি স্যামসাংয়ের অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে সরাসরি সম্প্রচারিত হয়। তবে এবার স্পেসিফিকেশন অংশ হতে একনজরে Samsung Galaxy S6 and S6 EDGE  এর স্পেসিফিকেশন  দেখে নিন (এখানে বলে রাখা ভালো যে S6 ও S6 EDGE এর মধ্যে ডিসপ্লে এবং ব্যটারী ছাড়া কোন তফাত নেই)।

S6 ও S6 EDGE নিয়ে কিছু Video(ক্লিক করুন)-

Samsung Galaxy S6 (& EDGE) Official Introduction

Samsung Galaxy S6(& EDGE) Top Five Feature

Galaxy S6 vs iPhone 6 Plus: Quick Comparison

Galaxy S6 vs S6 Edge: 5 Things to Know Before Buying

দেখে নিলেন এর স্পেসিফিকেশন, কিন্তু এগুলো তো প্রায় সব ফোনেই কমবেশি একই, শুধু কোম্পানি বা ভার্সন আলাদা। তাহলে S6 (+EDGE)এর বৈশিষ্ট্য কি? আর কেনই বা তা World’s one of the most advanced Smartphones ? এসকল প্রশ্নের উত্তর থেকে চলুন জেনে নিই বিভিন্ন দৃষ্টিকোণ হতে S6(+EDGE) এর বৈশিষ্ট্যঃ

ডিসপ্লে-

s6 002

কোন একটি স্মার্টফোনকে পর্যবেক্ষণ করলে প্রথমেই যা চোখে পড়ে তাহল এর ডিসপ্লে। এদিক হতে Galaxy S6 অনেকটাই উন্নত এবং এতে ব্যবহৃত হয়েছে সুপার অ্যামোলেড উজ্জ্বল ডিসপ্লে যা সহজেই ব্যবহারকারীর মন কাড়বে।

বডি-

s6 008

যেকোন স্মার্টফোন সর্বপ্রথম দৃষ্টি আকর্ষণ করে তার বডির দিকে। বডি ডিজাইনের দিক থেকে স্যামসাং পুরনো প্রথা বজায় রাখলেও এতে নতুন হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে Gorilla Glass 4 দিয়ে মোড়ানো Full Metal বডি যা সেটটির ফিজিক্যাল সেফটি নিশ্চিত করে। শুধুমাত্র এর Glass টির গলে যেতে ৮০০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা প্রয়োজন, সেদিক থেকে মেটাল ফ্রেমের কথা না হয় আর নাই বা বললাম।

কলিং-

s6 001

Galaxy S6 একটি 4G স্মার্টফোন। এতে কল করার জন্য স্যামসাং ডায়ালপ্যাডকে নতুন করে সাজিয়েছে এবং সিম্পল কালার দিয়ে আকর্ষণীয় করে তুলেছে। S6 EDGE এ রয়েছে ৫ টি পর্যন্ত স্পেশাল কন্টাক্ট রাখার ফিচার যার মাধ্যমে এরা আপনাকে কল করলেযদি হ্যান্ডসেট উপুড় করা থাকলেও নির্দিষ্ট উজ্জ্বল রঙয়ের আলো প্রদর্শনের মাধ্যমে হ্যান্ডসেট আপনাকে জানিয়ে দিবে।

ক্যামেরা-

একটি স্মার্টফোনের প্রধান ফিচার হল এর ক্যামেরা। তাই এবার স্যামসাং ক্যামেরা তৈরির ক্ষেত্রে I-Phone 6 কেও টেক্কা দিয়ে দিয়েছে(যদিওবা 16 MP ক্যমারাকে কম মনে হয়)।

Samsung-compares-the-Galaxy-S6-camera-to-the-iPhone-6-camera.

S6 এর ফ্রন্ট ও রিয়ার ক্যামেরার দুটিতেই ব্যবহৃত হয়েছে উন্নত F1.9 লেন্স যা পুর্বের F2.4 এর চাইতে ৪৬ শতাংশ বেশি কার্যকর। এছাড়াও এতে রয়েছে Optical image stabilization, Auto focus, Real-time HDR এবং একটি Function Window যার সাহায্যে আপনি কোনরূপ স্ক্রলিং ছাড়াই চালু করতে পারবেন আপনার পছন্দের ক্যামেরা ফাংশন। সবচেয়ে মজার ব্যপার হচ্ছে Galaxy S6 এর ক্যামেরা এপটি অনেকাংশে একটি Photoshop এপও বটে, কারণ আপনি ইচ্ছা করলে এর মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের ইফেক্ট আপনার ফটোতে যোগ করতে পারবেন টাচের মাধ্যমে। রাতের বেলায় কম আলোতে ছবি তুলতে S6 এর কোন তুলনা হয় না এমনকি এক্ষেত্রে I-Phone 6 কেও হার মানাইয় স্যামসাং।

ব্যাটারি-

s6003

ব্যাটারি হিসেবে 2550 mAh (2600 mAh for EDGE) কিছুটা কম মনে হলেও ব্যটারি ব্যাকাপ এবং চার্জিং এর দিক থেকে স্যামসাং এর স্বাতন্ত্র বজিয়ে রেখেছে। অনেকের অভিযোগ রয়েছে যে এর ব্যটারি খোলা যায় না কিন্তু এর বিল্ট-ইন ওয়্যারলেস চার্জিং সিস্টেমের জন্য স্যামসাং এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে(এক্ষেত্রে তারা সম্ভবত “কিছু পেতে হলে কিছু হারাতে হয়”-এ পন্থা অবলম্বন করেছে)। এতে ব্যটারির সার্ভিস আরও ভালো হবে বলে আশা করা যায়।

চার্জিং-

s6 003

চার্জিংয়ের ক্ষেত্রে স্যমাসাং Galaxy S6 এ দুর্লভ সাফল্য এনেছে। Samsung Galaxy S6  ওয়্যারলেস পদ্ধতিতে চার্জ হয় এবং যেখানে একটি 2600 mAh ব্যটারির চার্জ হতে ন্যুনতম 4 ঘণ্টার মত সময় প্রয়োজন সেখানে Galaxy S6 মাত্র ১০ মিনিট চার্জ করে ৪ ঘণ্টা পর্যন্ত চালানো যায়। বর্তমান পরিস্থিতে ব্যক্তির দৈনন্দিন ব্যস্ততাকে মাথায় রেখে স্যামসাং এ পদ্ধতির সূচনা করেছে বলে জানা যায়।

পেমেন্ট-

s6 004

Galaxy S6 এ রয়েছে Samsung Pay নামক একটি এপ যা আপনার ক্রেডিট/ডেবিট কার্ডের কাজ করবে NFC-MST/Barcode এর মাধ্যমে। এক্ষেত্রে স্যামসাং কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা রেখেছে যার কারনবশত আপনার ক্রেডিট/ডেবিট কার্ডের কোন তথ্য স্যামসাং বা আপনার ফোনের কাছে থাকবে না। Samsung Pay আন্তর্জাতিক বিভিন্ন কার্ড যেমনঃ Visa, Mastercard, CITI, Bank of America ইত্যাদি সাপোর্টেড, তাই পেমেন্টে কোন অসুবিধাই হবে না।

সিকিউরিটি-

bg_img04

এদিক থেকে এবার বিশ্বের মোস্ট এডভান্সড সিকিউরিটি ফিচারযুক্ত ফোন তৈরি করে সারা পৃথিবীকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে স্যামসাং। Samsung Galaxy S6 এ রয়েছে Samsung Knox সিকিউরিটি সিস্টেম যা নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে শতভাগ কার্যকর। পেমেন্ট অপশন থেকে শুরু করে সবধরনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করাই এর কাজ। এছাড়াও S6 এর ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্স প্রযুক্তি আপনার স্মার্টফোনকে রাখবে ৯০ ভাগ সুরক্ষিত(বাকি ১০ ভাগ আপনার দায়িত্ব)। সিকিউরিটি ফিচারের দিক থেকে স্যামসাং কোনরূপ কার্পণ্য করা হয় নি। তাই বলা যায়, Galaxy S6 বিশ্বের সর্বাধুনিক নিরাপত্তা প্রযুক্তিযুক্ত স্মার্টফোন।

গ্যলাক্সি গিয়ার (Gear  VR)-

S6 এর সাথে এর উপযোগকরে তৈরি গ্যলাক্সি গিয়ার ভিআর বাজারে আনতে যাচ্ছে স্যামসাং। এটি সম্পর্কে জানতে আমার পরবর্তী পোস্টের দিকে চোখ রাখুন।

বিশ্বের অন্যতম আধুনিক এ স্মার্টফোন বর্তমানে MWC-2015 এ প্রদর্শন করা হচ্ছে। স্যামসাংয়ের তথ্য মতে আগামী এপ্রিল মাসের ১০ তারিখে এটি একযোগে বিশ্বের ২০ টি দেশের বাজারে উন্মুক্ত করা হবে।

এধরণের নিত্যনতুন পোস্ট পেতে সাথে থাকুন এন্ড্রয়েড সমগ্রর…………………………………. (ধন্যবাদ)

মন্তব্যসমূহ